advertisement
আপনি দেখছেন

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে বিস্ফোরণে আহতদের চিকিৎসা দিতে এবার সাহায্যের হাত বাড়ালো কাতার। বুধবার সেখানে অস্থায়ী হাসপাতাল ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে তারা। কাতার এয়ারফোর্সের সি-১৭ মডেলের একটি কার্গো বিমানে করে এসব পণ্য বৈরুতের আল-উদেউদ বিমান ঘাঁটিতে অবতরণ করে।

qatar aid to lebanonবৈরুতে অস্থায়ী হাসপাতাল পাঠালো কাতার

দ্য নিউ আরবের বরাতে জানা যায়, বুধবার আল-উদেউদ বিমান ঘাঁটিতে কাতার বিমান বাহিনীর বিশেষ একটি দলকে কলাপ্সেবল বেড (ভাজ করা যায় এমন বিছানা), জেনারেটর এবং আগুনে পোড়া রোগীদের চিকিৎসা প্রধানে বিশেষ বেড শিট নামাতে দেখা গেছে। এদিন কাতার হতে চতুর্থ বিমানটি অবতরণ করার পর কাজ করতে শুরু করে সবাই।

বিমান ঘাঁটির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, কাতার হতে বিভিন্ন ফ্লাইটে ৩ হাজার ১৭৫ কিলোগ্রামের পণ্য এসেছে। তারা সেসব পণ্য খালাস করে কাজে নেমে পড়েছেন। বেশিরভাগ সরঞ্জাম যুদ্ধের সময় কাজে ব্যবহার হওয়া অস্থায়ী হাসপাতালের মতো। ইতোমধ্যে কাতারের কর্মকর্তারা বৈরুতের দুটি হাসপাতালে ৫৫০টি অস্থায়ী বেড স্থাপন করেছে বলে জানা গেছে।

beirut explosion 3বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার দৃশ্য

এর আগে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানি লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউনের সঙ্গে বিস্ফোরণ পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি লেবানিজদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দেন এবং নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন।

সেই আলোচনার পর কাতার আমির এক টুইটে বলেন, লেবাননকে সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত কাতার। দ্রুত সেখানে মেডিকেল সরঞ্জামসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় বস্তু পাঠানো হবে।

দ্য নিউ আরব বলছে, লেবাননে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকেই কাতার থেকে কার্গো বিমানের মাধ্যমে মেডিকেল সামগ্রী আসছে। বিস্ফোরণের কারণে সে সাহায্যের পরিমাণ আরো কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

sheikh mujib 2020