advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের সাধারণ জনগণ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তিলাভের জন্য ব্লিচিং ও অন্যান্য জীবাণুনাশক পান করছে। কর্তৃপক্ষ নিষেধ করার পরও তারা এসব কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হচ্ছে। ফলে রাজ্যটিতে বেড়ে গেছে অকাল মৃত্যুর সংখ্যা।

bleaching 02করোনা তাড়ানোর নামে ব্লিচিং খেয়ে মরছে মার্কিনিরা

আল আরাবিয়ার বরাতে জানা যায়, টেক্সাসে গত কয়েক সপ্তাহে ব্লিচিং খেয়ে মৃত্যু বেড়েছে ৭১ শতাংশ, গৃহস্থলীর অন্যান্য জীবাণুনাশকের কারণে মৃত্যুর ঘটনা বেড়েছে ৬৩ শতাংশ।

টেক্সাস স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা ক্রিস্টিনা হলোওয়ে বলেন, আমরা সচরাচর কাউকে ব্লিচিং পান করতে দেখি না। কিন্তু গেল কিছুদিন এই সংক্রান্ত ঘটনা বেড়ে গেছে। ২০২০ সালে গত কয়েক বছরের তুলনায় ব্লিচিং পান করে মৃত্যুর ঘটনা সবচেয়ে বেশি ঘটেছে।

bleaching 03করোনা তাড়ানোর নামে ব্লিচিং খেয়ে মরছে মার্কিনিরা

গত জুনে এক সতর্কতামূলক নির্দেশনায় যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (সিডিসি) জানায়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্যে ব্লিচিং ব্যবহার করা হচ্ছে। এমনকি তারা ব্লিচিং দিয়ে খাবার ধৌত করছে। যা মোটেই নিরাপদ কিছু নয়। এতে রয়েছে চরম স্বাস্থ্যঝুঁকি। তাছাড়া এই পদ্ধতিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকেও বাঁচা সম্ভব নয়।

এপ্রিলের দিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, মার্কিন নাগরিকদের উচিত তাদের শরীরে জীবাণুনাশক প্রবেশ করানো- এতে করে করোনাভাইরাস মরে যাবে। তার সেই বক্তব্য বেশ সমালোচিত হলেও অনেকে তা অনুসরণ করে মারা গেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের ওই বক্তব্যের পর এক গবেষণা করে সিডিসি। সেখানে দেখা যায়, ট্রাম্পের বক্তব্যের পর মার্কিনিদের মধ্যে ব্লিচিংয়ের ব্যবহার বেড়েছে। কিন্তু অধিকাংশ নাগরিক জানে না এর সঠিক ব্যবহার। ৬০ শতাংশ মার্কিনি নিজেদের বসতবাড়িতে মাত্রাতিরিক্ত ব্লিচিং ব্যবহার করেছেন। যা যেকোনো বিপদ ডেকে আনতে পারতো।

টেক্সাস স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের এক কর্মকর্তা বলেন, মানুষ না জেনেই ব্লিচিং পান করছে। এটি খুব মারাত্মক একটি পদার্থ। পান করার পর দেহে তীব্র প্রদাহ হয় এবং মৃত্যু হয়।

sheikh mujib 2020