advertisement
আপনি দেখছেন

কোনো শাস্তিই যেন ধর্ষকদের থামাতে পারছে না ঘৃণ্য এ অপকর্ম থেকে। তাই ধর্ষকদের রাস টানতে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জন নানা ধরনের শাস্তির দাবি তুলেছেন। এতে নতুন করে যুক্ত হয়েছে ‘অভিনব শাস্তির’ দাবি তোলা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নাম।

imran khan 19ইমরান খান

ক্রিকেট তারকা থেকে রাজনীতিক বনে যাওয়া ইমরান খানের দাবি, ধর্ষণের মতো অপরাধের শাস্তি হওয়া উচিত, ধর্ষকের জনসমক্ষে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মারা অথবা নপুংসক করে দেয়ার মতো আইন থাকা দরকার। গেল সপ্তাহে পাকিস্তানে ধর্ষণের একটি ঘটনা নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এ ধরনের আইনের বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করছেন জানিয়ে তিনি আরো বলেন, অপরাধের ধরনের ওপর ভিত্তি করে এমন আইন করা হতে পারে। তবে এ ধরনের আইন করা হলে পাকিস্তানকে দেয়া ইউরোপীয় ইউনয়নের (ইইউ) জিএসপি বা ব্যবসায়িক সুবিধা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

আইনের ব্যাখ্যায় ইমরান খানের মত, হত্যা মামলার ক্ষেত্রে অপরাধের উদ্দেশ্য ও ধরণ বিবেচনায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণিকরণ করা হয়। ধর্ষণের অভিযোগের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম হতে পারে। এর প্রথম শ্রেণির অপরাধের শাস্তি হিসেবে রাসায়নিক প্রয়োগে ধর্ষককে নপুংসক করা হতে পারে, যাতে সে অপরাধী দ্বিতীয়বার এ ধরনের অপরাধ করতে না পারে।

পাকিস্তানে প্রায়ই ধর্ষণের ঘটনা ঘটায় গত ফেব্রুয়ারিতে জনসমক্ষে ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ডের প্রস্তাব করেছিলেন দেশটির আইনপ্রণেতারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি পাস করে আইনে পরিণত করা যায়নি।

প্রসঙ্গত, লাহোরের একটি হাইওয়েতে গাড়ি চালিয়ে যাওয়া দুই সন্তানের এক জননীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে পাকিস্তানজুড়ে তীব্র বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পর দুই অভিযুক্তের মধ্য একজনকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ।

sheikh mujib 2020