advertisement
আপনি দেখছেন

পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। এর মধ্যে রয়েছে- তার সরকারকে উৎখাত, বিচার বিভাগে চাপ প্রয়োগ এবং ২০১৮ সালে কারচুপির নির্বাচনে ইমরান খানকে ক্ষমতায় আনার মতো অভিযোগ।

qamar javed bajwa nawaz sharifকামার জাভেদ বাজওয়া ও নওয়াজ শরিফ

গতকাল শুক্রবার দেশটির পাঞ্জাবের গুজরানওয়ালায় ১১ দলের বিরোধী জোটের বিশাল সমাবেশে এক ভিডিও বার্তায় নওয়াজ শরিফ এসব অভিযোগ তোলেন। ইমরান খানের পদত্যাগ দাবিতে এ প্রতিবাদ কর্মসূচিতে লন্ডন থেকে যুক্ত হন তিনি।

সমাবেশে সেনাপ্রধানকে উদ্দেশ করে নওয়াজ বলেন, আপনি আমার সরকারকে সরিয়ে দিয়েছেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী পাকিস্তানকে আপনার ইচ্ছার ওপর নির্ভরশীল করেছেন। এ সময় দেশটির আন্তঃবাহিনী গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানের বিরুদ্ধেও এ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকার অভিযোগ তোলেন তিনি।

ভারতীয় এনডিটিভি জানিয়েছে, পাকিস্তানের রাজনীতিতে হস্তক্ষেপের কথা অস্বীকার করেছে পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী। তবে এ বিষয়ে জনসংযোগ বিভাগ থেকে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

এদিকে, নির্বাচনে কারচুপিতে সামরিক সহযোগিতার কথা অস্বীকার করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বিরোধী দলগুলোর কর্মসূচিতে ভীত নন বলেও জানান তিনি।

qamar javed bajwa imran khanকামার জাভেদ বাজওয়া ও ইমরান খান

২০১৭ সালে দুর্নীতির অভিযোগ উঠায় নওয়াজকে প্রধানমন্ত্রীর পদে অযোগ্য ঘোষণা করে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট। এ সংক্রান্ত মামলায় তিনি দীর্ঘদিন জেলে থাকার পর গত নভেম্বরে চিকিৎসার জন্য লন্ডন যান। বর্তমানে তার দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ (পিএমএল-এন) প্রধান বিরোধী দল হিসেবে রয়েছে।

এ দলটির নেতৃত্বে ৯টি বড় দলসহ ১১টি রাজনৈতিক দল মিলে পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট (পিডিএম) নামে সরকার-বিরোধী জোট গঠন করেছে। এ জোটের গতকালের সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তানের সরকারকে ‘সেনা সমর্থিত ও অক্ষম’ উল্লেখ করে ক্ষমতা থেকে সরানোর অঙ্গীকার করা হয়।

এ সমাবেশে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের মেয়ে মরিয়ম (পিএমএল-এন), বেনজির ভুট্টোর ছেলে বিলওয়াল জারদারি (পিপিপি), মাওলানা ফজলুর রহমান (পিডিএম), মাহমুদ আসাকজাইসহ অনেক নেতা বক্তব্য রাখেন।

sheikh mujib 2020