advertisement
আপনি দেখছেন

ইরানের ওপর জাতিসংঘের আরোপ করা অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে আজ রোববার (১৮ অক্টোবর)। এর প্রতিক্রিয়ায় দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেন, এতে গোটা বিশ্বের সঙ্গে ইরানের প্রতিরক্ষা সহযোগিতা স্বাভাবিক হলো। এ ঘটনায় স্বাভাবিক কারণেই ইরানে স্বস্তির বাতাস বইছে।

mohammad jawad zarif iranজাওয়াদ জারিফ

আজ সকালে এক টুইটবার্তায় তিনি বলেন, অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়া ইরানের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সমাজের জন্যও তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা। এর ফলে বহুমুখী বিশ্বব্যবস্থা এবং মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় আরেক ধাপ অগ্রগতি হয়েছে।

ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফ আরো বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে অনৈতিক মার্কিন দাবি প্রত্যাখ্যান করে আন্তর্জাতিক সমাজ জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব রক্ষা করেছে। এ জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই।

এদিকে, জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি কাজেম গরিবাবাদি বলেন, ইরানের সমরাস্ত্র কেনাবেচার ওপর নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে। এখন কোনো দেশ তেহরানের বিরুদ্ধে আঙুল তুলতে পারবে না।

irans defence systemনিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি ইরানের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা

অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার বিষয়টি রোববার ভোরে আনুষ্ঠানিকভাবে এক বিবৃতিতে বিশ্বকে জানিয়েছে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাতে বলা হয়, কোনো আইনগত বাধা ছাড়াই ১৮ অক্টোবর থেকে ইরান বিশ্বের যে কোনো দেশ থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম কিনতে পারবে। পাশাপাশি নিজেদের তৈরি অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম অন্য যে কোনো দেশের কাছে বিক্রিও করতে পারবে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আমেরিকার সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে ইরানের সঙ্গে করা পরমাণু সমঝোতা ও জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব রক্ষা করেছে আন্তর্জাতিক সমাজ।

জাতিসংঘের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাবে স্পষ্ট বলা হয়েছে যে, ইরানের ওপর থেকে ২০২০ সালের ১৮ অক্টোবর থেকে স্বয়ংক্রিয় ও নিশ্চিতভাবে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পক্ষ থেকে এর জন্য আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণার প্রয়োজন নেই। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিবাদ উপেক্ষা করে ইরানবিরোধী পদক্ষেপ নেওয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বিরত থাকার আহ্বানও জানানো হয় বিবৃতিতে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব অনুসারে আজ রোববার ভোর সাড়ে ৩টায় (তেহরান সময়) ইরানের ওপর আরোপিত জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা স্বয়ংক্রিয়ভাবে উঠে গেছে।

sheikh mujib 2020