advertisement
আপনি দেখছেন

রাজার ক্ষমতা খর্ব এবং প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে থাইল্যান্ডে। উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় জরুরি অবস্থা জারি করা হলেও তা ভেঙ্গে দেশটির রাজধানী ব্যাংকক অচল করে দেন বিক্ষোভকারীরা।

big protests in thailandসরকার-বিরোধী বিশাল বিক্ষোভ

এমতাবস্থায় পিছু হটে গতকাল বুধবার আন্দোলনকারীদের আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন পদত্যাগে অস্বীকৃতি জানানো থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুত চান-ওচা। সেইসঙ্গে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে জনসমাবেশের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হয়েছে।

দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে আজ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলা হয়, গুরুতর পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় জনসমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে রাজতান্ত্রিক দেশ থাইল্যান্ডে এতটা তীব্র ও বিশাল সরকার-বিরোধী বিক্ষোভ দেখা যায়নি। দেশটির রাজাকে সর্বোচ্চ ক্ষমতাধর হিসেবে দেখা হয়, যার সংস্কার এবং দেশে অধিকতর গণতন্ত্র চান বিক্ষোভকারীরা।

king of thailandথাই রাজা

থাই গণমাধ্যমগুলো বলছে, রাজপরিবারের প্রকাশ্য সমালোচনা নিষিদ্ধ থাকলেও তা ভঙ্গ করছেন বিক্ষোভকারীরা। এ সংক্রান্ত আইনগুলো নিয়েও প্রশ্ন তুলে তারা বলছেন, রাজতন্ত্রের এমন আইন আলোচনার গলা টিপে ধরেছে।

sheikh mujib 2020