advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় সংযুক্ত আরব আামিরাত, বাহরাইন ও সুদান দখলদার ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিককরণ চুক্তি করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে ইসরায়েলকে একটি সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

saudi foreign minister foysalফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ

ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেওয়ার এই কাতারে আরো কয়েকটি আরব রাষ্ট্র যুক্ত হতে যাচ্ছে বলে ঘোষণাও দিয়েছেন ট্রাম্প। এর মধ্যে সৌদি আরবও থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ ইতোমধ্যে তেলআবিবকে আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে রিয়াদ।

এই যখন অবস্থা তখন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ জানালেন, তার দেশের একটি মাত্র শর্ত পূরণ হলেই তারা ইসরায়েলকে সমর্থন দেবেন বা সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত হবেন।

deal with israel uae bahrineইসরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের চুক্তি

পার্সটুডের প্রতিবেদন বলছে, গতকাল শনিবার জি-২০ ভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল সম্মেলনের অবকাশে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ওই কথা জানান সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ফয়সাল বিন ফারহান বলেন, একটি স্থায়ী ও পূর্ণাঙ্গ শান্তি চুক্তির মাধ্যমে যদি ফিলিস্তিনিদের জন্য সার্বভৌম ও মর্যাদাপূর্ণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা হয়, তাহলেই কেবল ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিককরণের ব্যাপারে পূর্ণ সমর্থন দেবে সৌদি সরকার।

অন্যদিকে, দখলদার ইসরায়েলের সঙ্গে উল্লিখিত দেশগুলোর সম্পর্ক স্বাভাবিককরণের ঘোষণায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিনের জনগণ ও দেশটির প্রতিরোধীকামী সংগঠনগুলো। তারা এই পদক্ষেপকে ফিলিস্তিনিদের পিঠে পেছন থেকে ছুরি মারার সঙ্গে তুলনা করেছে।

sheikh mujib 2020