advertisement
আপনি দেখছেন

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর ‘গোপন’ সৌদি সফর নিয়ে সমালোচনা যখন তুঙ্গে তখন দেশটির পক্ষ থেকে বিশেষ সুবিধা পেলো সৌদি আরব। করোনাভাইরাসের প্রেক্ষাপটে ইসরায়েল কর্তৃক নিষেধাজ্ঞার যে তালিকা করা হয়েছে, সেখানে থাকা সৌদি আরবের নাম প্রত্যাহার করেছে দেশটি। আগে ‘রেড’ দেশের তালিকায় থাকলেও এর ফলে সৌদি আরব এখন ‘গ্রীণ’ তালিকায়।

saudi prince and netanyahuমোহাম্মদ বিন সালমান ও বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু

অর্থাৎ, এখন থেকে ইসরায়েলে যাওয়া সৌদি পর্যটকদের কোয়ারেন্টাইন পালন করতে হবে না। এছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে তারা পাবে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত আরো কিছু সুবিধা। সৌদি আরবের পাশাপাশি বাহরাইনকেও ‘লাল’ তালিকা থেকে ‘গ্রীণ’ তালিকায় নিয়ে আসা হয়েছে। প্রসঙ্গত, বাহরাইন কিছুদিন আগে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেছে।

গত ২২ নভেম্বর অত্যন্ত গোপন আর স্পর্শকাতর একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ও সৌদি আরবেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের মধ্যে। সৌদি আরবের নিওম শহরে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান ইয়োসি কোহেন।

maick pompeoমাইক পম্পেও

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- সফরটি এতটাই স্পর্শকারত যে, এ নিয়ে ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিংবা প্রতিরক্ষামন্ত্রী কিছুই জানতেন না। ব্যক্তিগত বিমানে উড়ে গিয়ে সেখানে মাত্র ২ ঘণ্টা অবস্থানের পর দেশে ফিরে যান নেতানিয়াহু। বৈঠকে কী নিয়ে আলাপ হয়েছে তা নিয়ে মুখ খোলেনি কোনো পক্ষই।

sheikh mujib 2020