advertisement
আপনি দেখছেন

সৌদি আরব সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে এ বছরও ‘বিশেষ শর্তে’ পবিত্র হজ আয়োজন করা হবে। তবে এই ‘বিশেষ শর্ত’টা কী তা স্পষ্ট করা হয়নি। পরবর্তীতে বিষয় জানানোর কথা বলা হয়েছে।

hajj in special condition this year

সৌদি সরকারের হজ বিষয়ক মন্ত্রণালয় রোববার দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এ সংক্রান্ত ঘোষণা দেয়। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি ওই মন্ত্রণালয়। যদিও এর আগে বলা হয়েছিল যে, এ বছর হজ করতে হলে কোভিড-১৯ টিকা বাধ্যতামূলক।

উল্লেখ্য, এর আগে গত বছর (২০২০ সাল) বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে করোনার মহামারি। এমনকি সৌদি আরবেও উল্লেখযোগ্য হারে ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। এ অবস্থায় গত বছর সীমিত পরিসরে হজ আয়োজন করা হয়। এতে শুধু সৌদি নাগরিক ও দেশটিতে অবস্থানরত বিদেশিদের মধ্য থেকে কিছু সংখ্যক মুসলমান অংশ নিতে পারেন। বাইরের কোনো দেশ থেকে কেউ এতে অংশ নিতে পারেনি।

সাম্প্রতিক সময়ে আবারো বিশ্ব জুড়ে ভাইরাসটির সংক্রমণ ব্যাপক হারে বেড়ে গেছে। একই সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এর নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট বা ধরনও শনাক্ত হয়েছে, যা মূল করোনা থেকে আরো বেশি ভয়ংকর।

holy grand mosque

এ অবস্থায় সম্প্রতি সংশ্লিষ্ট দুই সৌদি কর্মকর্তা ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, চলমান মহামারি কারণে এ বছরও অন্য দেশ থেকে হজ করার অনুমিত দেওয়া হবে কি না- তা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করছে সৌদি সরকার।

উল্লেখ্য, ইসলামের পাঁচটি মৌলিক ভিত্তির এক হলো পবিত্র হজ। করোনার মহামারির আগে প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ২৫ লাখের বেশি মানুষ হজ পালন করতে সৌদি আরব যেতেন। এ ছাড়া সারা বছর আরো কয়েক লাখ মুসলমান ওমরাহ পালন করতেন।