advertisement
আপনি দেখছেন

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় দফায় দফায় বিমান হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। সর্বশেষ গত সোমবার (১০ মে) রাতে যে বিমান হামলা চালানো হয়েছে তাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ জনে। যার মধ্যে অন্তত ১০ জন শিশু রয়েছে। এছাড়া তীব্র এই বোমা হামলায় মাটির সাথে মিশে গেছে ১৩ তলা বিশিষ্ট গাজা টাওয়ার।

palestinian rocket rain 2

গত জুমাতুল বিদার দিনে আল আকসা মসজিদে নামাজ পড়তে যাওয়ার পর শুরু হয় এই সহিংসতার ঘটনা। তারপর থেকে থেমে চলে ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলার ঘটনা। ইসরায়েলি ভূমি লক্ষ্য করে ফিলিস্তিন থেকেও পাল্টা রকেট ছোঁড়া হয়। তাতে ৬ ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আলজাজিরা জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজার উপকূলবর্তী এলাকা থেকে ইসরায়েলের দিকে রকেট হামলা চালানো হয়। এরপর রাতে গাজার উত্তরাঞ্চলে সিরিজ বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বিমানবাহিনী। এতে প্রাণহানি ছাড়াও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিও হয়েছে।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল জোনাথন কনরিকাস বলেন, গাজায় সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে হামলা অব্যাহত রেখেছে তাদের বাহিনী। ইতোমধ্যে হামাসের তিন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য নিহত হয়েছেন।

অন্যদিকে, হামাসের একটি সূত্র গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে যে, ইসরায়েলের বিমান হামলায় গাজার প্রতিরোধ সংগঠনটির সামরিক শাখা আল-কাসসাম ব্রিগেডের কমান্ডার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ফায়াদ নিহত হয়েছেন।