advertisement
আপনি দেখছেন

গত সোমবার থেকে শুরু হওয়া ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতে উভয় পক্ষে হতাহতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। তেল আবিব ও গাজার হামলা ক্রমেই বিস্তৃত হওয়ায় পরিস্থিতি পুরোদমে যুদ্ধের দিকে মোড় নিচ্ছে।

israeli airstrikes in gaza

এমন প্রেক্ষাপটে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় চলমান বিমান হামলা চলবে বলে জানিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। গতকাল বুধবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে ফোনে কথা বলার পর এ কথা জানানো হয়।

এ সময় নেতানিয়াহু দাবি করেন, হামাসের রকেট হামলা প্রতিহত করতে আমাদের পদক্ষেপে সমর্থন জানিয়েছেন বাইডেন। তিনি আরো বলেন, হামলা তো মাত্র শুরু হয়েছে। তাদের ওপর এমনভাবে আক্রমণ করা হবে, যা কল্পনাও করেনি তারা।

ডয়চে ভেলে জানায়, ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের বিষয়ে হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন বাইডেন। এ সময় তিনি বলেন, আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে তেল আবিবের।

biden netanyahu

চলমান সংঘাতে তেল আবিবের শত শত বার বিমান হামলায় ১৭ শিশুসহ ৮৩ ফিলিস্তিনি নিহত ও আহত হয়েছে ৪৮০ জন। অন্যদিকে, গাজার ছোড়া প্রায় দুই হাজার রকেট হামলায় ৬ জন নিহতের তথ্য নিশ্চিত করেছে ইসরায়েল, আহত হয়েছে ডজনে ডজনে মানুষ।

এদিকে, মধ্যপ্রাচ্যের চির শত্রু দেশ দুটির নতুন এই সহিংসতায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। শান্তি ফেরাতে সংশ্লিষ্টদের তৎপরতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

বিষয়টি জানিয়ে সংস্থাটির মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক শান্তি দূত টর ওয়েনেসল্যান্ড বলছেন, এতে কার্যত ‘পূর্ণমাত্রার যুদ্ধের দিকে এগিয়ে’ যাচ্ছে ফিলিস্তিন ও ইসরায়েল। সেখানে যুদ্ধাপরাধ ঘটছে কি না, সেদিকে নজর রাখছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত।