advertisement
আপনি দেখছেন

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত ভারত। এই অবস্থার মধ্যেই দেশটির দিকে এবার ধেয়ে আসছে চলতি বছরের প্রথম ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’ (Cyclone Tauktae)। ইতোমধ্যে এর প্রভাবে দেশটির কোনো কোনো রাজ্যে বৃষ্টি শুরু হয়েছে বলে খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো।

cyclone tauktae india home

ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যম জানিয়েছে, আবর সাগর ও লাক্ষাদ্বীপ এলাকা থেকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়। আরব সাগরে তৈরি হওয়া এই নিম্নচাপটি আগামী রোববারের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে।

খবরে বলা হয়েছে, ইতোমধ্যেই ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’র প্রভাবে শুক্রবার থেকেই লাক্ষাদ্বীপসহ কিছু এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি শুরু হয়েছে। কেরালা রাজ্যের ৫ জেলায় শুক্রবারই রেড সিগন্যাল (লাল সতর্কতা) জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া মহারাষ্ট্র ও গুজরাটে ভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ভারতীয় আবহাওয়া বিভাগের তথ্যানুসারে, আগামী রোববার বা সোমবার দেশটির দক্ষিণ উপকূলে ঘূর্ণিঝড় তাওকতের আছড়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এর প্রভাবে কেরালায় শনিবার থেকে ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

cyclone tauktae india

দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, ঘূর্ণিঝড় তাওকতে কোঙ্কন উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে। গোয়া, মুম্বাই ও গুজরাটে এর বেশ প্রভাব পড়বে। সতর্কতায় বলা হয়েছে, আগামী মঙ্গলবার নাগাদ গুজরাটে এই ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে। বুধবার নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাবে রাজস্থানের দক্ষিণ-পশ্চিম এলাকায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে উপকূলবর্তী রাজ্যগুলোতে আগামী ৫ থেকে ৬ দিন ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাবে। এই ঝড়ের গতি ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৮০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে।

কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরিস্থিতি মোকাবেলায় আগাম সতর্ক হিসেবে ইতোমধ্যেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবেলা বাহিনীর (এনডিআরএফ) ৫৩টি টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যেই এর ২৪টি টিমকে বিভিন্ন এলাকায় পাঠানো হয়েছে। বাকি টিমগুলোকে স্ট্যান্ডবাই রেখেছে প্রশাসন।