advertisement
আপনি দেখছেন

অনাহারের কারণে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মানুষ মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়েছে। একই সঙ্গে চরম খাদ্য সংকটে রয়েছে ৫৫ লাখ মানুষ। আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ার টিগ্রেতে এই অবস্থা বিরাজ করছে বলে জাতিসংঘের রিপোর্টের বরাত দিয়ে জানিয়েছে ডয়চে ভেলে।

ethiopia tigray famineইথিওপিয়ার টিগ্রেতে অনাহারে মৃত্যুর ‘মুখোমুখি’ সাড়ে ৩ লাখ মানুষ

এদিকে, মার্কিন গণমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের সহায়তাকারী সংস্থাগুলো ইথিওপিয়ার উত্তরে টিগ্রে অঞ্চলে মানবিক যুদ্ধবিরতির জন্য আহ্বান জানিয়েছে।

জাতিসংঘের সংস্থাগুলো সতর্ক করে দিয়ে জানিয়েছে যে, সেখানে ইতোমধ্যে ৩ লাখ ৫০ হাজার মানুষ দুর্ভিক্ষের পরিস্থিতিতে রয়েছে। সেই সঙ্গে আরো ২০ লাখ দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে।

ethiopia tigray famine innerইথিওপিয়ার টিগ্রেতে অনাহারে মৃত্যুর ‘মুখোমুখি’ সাড়ে ৩ লাখ মানুষ

জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত লিন্ডা টমাস-গ্রিনফিল্ড আমেরিকা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সহযোগিতায় পরিচালিত মানবিক জরুরি অবস্থার বিষয়ে এক বৈঠকে বলেছেন, ইথিওপিয়ার লোকজনকে আমরা অনাহারে থাকতে দিতে পারি না। এ বিষয়ে এখনই আমাদের পদক্ষেপ নিতে হবে।

অন্যদিকে, খাদ্য সংকট মোকাবেলায় সরকার, জাতিসংঘ এবং এনজিওগুলোকে পরিচালিত বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্কের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বৃহস্পতিবার বলা হয়েছে, টিগ্রে ও পার্শ্ববর্তী আমহার এবং আফার অঞ্চলে সামগ্রিকভাবে ৫৫ লাখেরও বেশি মানুষ খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার সংকটে রয়েছে।

ইন্টিগ্রেটেড ফুড সিকিউরিটি ফেজ ক্লাসিফিকেশন বা আইপিসি নামের ওই নেটওয়ার্ক সতর্ক করে বলেছে, ইথিওপিয়া- বিশেষ করে টিগ্রের পরিস্থিতি আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে আরো খারাপ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এই মুহূর্তে সেখানে তাৎক্ষণিক সহায়তা দরকার। তাছাড়া ৪ লাখের বেশি মানুষের ‘বিপর্যয়কর পরিস্থিতির’ মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা আছে।