advertisement
আপনি দেখছেন

আফগানিস্তানে মানবাধিকারের মারাত্মক লঙ্ঘন করছে তালেবান- এমন মন্তব্য করে ডিক্রি জারি করেছে জাতিসংঘ। আজ বুধবার ওই বিবৃতিতে জাতিসংঘ বলেছে, আফগান পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক এবং তা ক্রমেই বাড়ছে। সেনাবাহিনীর চলমান অভিযান ও তালেবানদের যুদ্ধ মানবাধিকার লঙ্ঘনের সীমা অতিক্রম করেছে। খবর টোলো নিউজের।

logo united nationsজাতিসংঘ

জাতিসংঘের ডিক্রিতে বলা হয়েছে- মানুষ হত্যা, অস্ত্রের অপব্যবহার, অত্যাচার-নির্যাতন এবং বৈষম্য মারাত্মক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা জনপদে ভয়-আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি করছে। যারাই এর সঙ্গে জড়িত তাদের অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে জাতিসংঘ। বিশেষ করে নারী ও শিশুদের পরিস্থিতি জঘন্য।

জাতিসংঘের বক্তব্য, আফগানিস্তানের উভয়পক্ষকে অবশ্যই মানবাধিকার সুরক্ষার বিষয়ে নিশ্চয়তা দিতে হবে। বিশেষ করে কোনো নারী-শিশুর জীবন যেন হুমকির মধ্যে না থাকে সেদিকে তাদের দৃষ্টি দিতে হবে। বৈষম্যের তীব্রতা সেখানে দিন দিন বাড়ছে। দেশটিতে উভয়পক্ষের প্রতি শান্তি প্রক্রিয়ার আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ বলছে, বেসামরিক মানুষের জান-মালের ক্ষতি এড়াতে দুপক্ষকে সংলাপে বসতে হবে।

taleban fighterতালেবান যোদ্ধা

জাতিসংঘ দেশটির সরকারি ভবনগুলো সুরক্ষার আহ্বান জানিয়েছে তালেবানের প্রতি। কারণ তালেবান যেসব এলাকা দখল করছে সেসব এলাকার সরকারি ভবন ধংস করে দিচ্ছে। জাতিসংঘ বলছে, বিশ্ব আফগানিস্তানের ভালো ভবিষ্যতের জন্য আগ্রহী। এজন্য সরকারি ভবনগুলো রক্ষা করা দরকার। এটা আফগানিস্তানের কল্যাণের জন্য প্রয়োজন।

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে তালেবান ও সরকারির বাহিনীর মধ্যে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটি বলছে, ঈদ উপলক্ষে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করতে পারলে সেটা আফগানিস্তানে শান্তি ফিরিয়ে আনবে।