advertisement
আপনি দেখছেন

হাইতির প্রেসিডেন্ট জোভেনেল মোইজের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী এরিয়েল হেনরির বিরুদ্ধে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছে। গত জুলাইতে ঘটে যাওয়া ওই ঘটনার প্রেক্ষিতে দেশটির প্রধান প্রসিকিউটর বেড-ফোর্ড ক্লডি এ অভিযোগ আনেন।

moiji and henryহেনরির হাতে মনোনয়নের সনদ তুলে দিচ্ছেন মোইজি, ফাইল ছবি

বেড-ফোর্ড ক্লডি হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজনদের সাথে হেনরির ফোনকলের জের ধরে তার বিরুদ্ধে মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ আনতে বলেন তদন্তকারী বিচারককে। হেনরিকে হাইতি ছাড়তে বাধা দেয়ার দাবি জানিয়ে ক্লডি বলেন, প্রধানমন্ত্রী হেনরির বিরুদ্ধে মামলা এবং সরাসরি অভিযুক্ত করার জন্য যথেষ্ট উপাদান রয়েছে।

গত ৭ জুলাই সশস্ত্র ব্যক্তিদের হামলায় মোইজি নিহত হন। এই হত্যাকাণ্ডের দরুণ দেশটির রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা আরো বেড়ে যায়। ক্লডি হেনরির সাথে সাক্ষাৎ করে জানতে চেয়েছিলেন, মোইজি হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজনের সাথে তিনি কেন কথা বলেছিলেন।

moisi মোইজিওর শেষকৃত্য অনুষ্ঠান, ফাইল ছবি

প্রেসিডেন্টকে হত্যার দুই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে হেনরি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার দায়িত্ব গ্রহণ করেন। গত ১১ সেপ্টেম্বর এক টুইট বার্তায় হেনরি বলেছিলেন, রাষ্ট্রপতি জোভেনেল মোইজির ভয়াবহ হত্যাকাণ্ডের মূল অপরাধী, মাস্টারমাইন্ড ও পৃষ্ঠপোষককে চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনা হবে।

ক্লডি অভিযোগের পেক্ষিতে গত সোমবার হাইতির নাগরিক সুরক্ষা অফিস হেনরিকে পদত্যাগ এবং এ বিষয়ে তার অবস্থান খোলাসা করার জন্য প্রসিকিউটরের কার্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার আহ্বান জানায়। তারা বলছেন, এ অবস্থায় তিনি প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকতে পারেন না, তাকে অবশ্যই সন্দেহ দূর করতে হবে। 

সূত্র: আল জাজিরা