advertisement
আপনি দেখছেন

জোর কূটনৈতিক তৎপরতার জেরে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যকার দীর্ঘ বছরের বৈরিতার ‘অবসান’ ঘটতে যাচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ ইতোমধ্যে রিয়াদ ও তেহরানের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়েছে। যা দুই দেশের মধ্যে বরফ গলার ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

iran started export to saudi arabiaসৌদি-ইরান সম্পর্কে সুবাতাস, আমদানি-রপ্তানি শুরু

ইরানের জাতীয় শুল্ক বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দীর্ঘ দিন পর সৌদি আরবের সঙ্গে আবারো দেশটির অর্থনৈতিক সম্পর্কের সূচনা হয়েছে। ৩৯ হাজার ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানির মধ্য দিয়ে তেহরান ও রিয়াদের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ফের শুরু হয়েছে। ইরানের জাতীয় শুল্ক বিভাগের মুখপাত্র রুহুল্লাহ লাতিফি সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলছেন, রপ্তানির অংকটা খুব ছোট হলেও এটি একটি শুভ সূচনা। দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর সৌদি আরব গেছে ইরানের পণ্য। এটা একটা সুসংবাদ। দুই দেশের মধ্যে যখন সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়ে কূটনৈতিক তৎপরতার চলছে তখন এই বাণিজ্যের ঘটনা নিঃসন্দেহে একটি ভালো দিক।

ruhullah latifee iranইরানের জাতীয় শুল্ক বিভাগের মুখপাত্র রুহুল্লাহ লাতিফি

ইরানের বার্তা সংস্থা আইআরআইবি-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লাতিফি আরও বলেন, ইরানের টাইলস ও স্পেরিক্যাল গ্লাস সৌদি আরবে রপ্তানি করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ৩৩ হাজার ডলারের স্পেরিক্যাল গ্লাস বা কাঁচ। এ ছাড়া রয়েছে ৬ হাজার ডলারের টাইলস। ট্রাফিক সাইনে ব্যবহার করা হয় স্পেরিক্যাল গ্লাস।

ইরানের জাতীয় শুল্ক বিভাগের এই মুখপাত্র বলেন, ইরানের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির শাসনামলে সৌদি আরবের সঙ্গে দেশটির রাজনৈতিক সম্পর্কের পাশাপাশি কূটনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক সম্পর্কের উন্নতি হবে বলেও আশা করছেন তারা।