advertisement
আপনি দেখছেন

যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়ায় আগামী ডিসেম্বরে শুরু হতে যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। দুই ধাপ বিশিষ্ট এই নির্বাচনের প্রথম ধাপ ২৪ ডিসেম্বর এবং দ্বিতীয় ধাপ অনুষ্ঠিত হবে এক মাস পর অর্থাৎ আগামী বছরের ২৪ জানুয়ারি। তার আগেই ইসরায়েলের হেয়োম পত্রিকা হাজির হলো গরম খবর নিয়ে। 

haftar gaddafiপ্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী খলিফা হাফতার ও সাইফ আল ইসলাম গাদ্দাফি

পত্রিকাটি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, যুদ্ধবাজ হিসেবে পরিচিত খলিফা হাফতার এবং লিবিয়ার সাবেক শাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির ছেলে সাইফ আল-ইসলাম গাদ্দাফি নিজ নিজ নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে একই ইসরায়েলি ফার্মের সাথে চুক্তি করেছেন।

উপসাগরীয় শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিদের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদপত্রটি জানায়, প্রথমে হাফতারের ছেলে পরামর্শদাতা সংস্থার সাথে এ বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষর করে। পরে দুবাইয়ে বসবাসকারী একজন নারী মডেলের মাধ্যমে অন্য প্রার্থীর কাছ থেকে অনুরোধ পায় তারা।

libya presidential electionsলিবিয়ায় শুরু হয়ে গেছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আমেজ

সংবাদপত্রটির মতে, ইসরায়েলি ফার্মটি একই নির্বাচনে দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর প্রচারণা চালাতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটি নতুন কোম্পানি নিবন্ধন করেছে। উভয় পক্ষ থেকে সংস্থাটি এই কাজের জন্য কোটি কোটি ডলার ফি নিয়েছে। বিষয়টি ফাঁস হয়ে গেলেও এ নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন হাফতার এবং সাইফ আল ইসলাম গাদ্দাফি।

২০২০ সালের ১৫ নভেম্বর লিবিয়ার রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের মধ্যে স্বাক্ষরিত একটি চুক্তির অধীনে আগামী ২৪ ডিসেম্বর থেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীরা হচ্ছেন- পপুলার ফ্রন্ট ফর দ্য লিবারেশন অব লিবিয়ার প্রার্থী সাইফ আল ইসলাম গাদ্দাফি, লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মির প্রার্থী ফিল্ড মার্শাল খালিফা হাফতার, এহইয়াহ লিবিয়ার প্রার্থী সাবেক রাষ্ট্রদূত আরেফ আলি নায়েদ, দেশটির হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার আগুইলা সালেহ ইসা এবং ন্যাশনাল অ্যাকর্ড সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফাতহি বাশাগা।