advertisement
আপনি পড়ছেন

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেছেন, মার্কিন গণতন্ত্র আদর্শ মডেল নয় বরং ভাঙা। এই মডেল আফগানিস্তানে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। আফগানদেরকে মার্কিন গণতন্ত্র অনুসরণ করতে বাধ্য করা হয়েছে। এটি যারা গ্রহণ করবে তারা পথভ্রষ্ট বা বিপথগামী হবে। আরিয়ানা নিউজ।

china fm spokesman zhao lijianঝাও লিজিয়ান

এদিকে, রয়টার্স জানাচ্ছে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের প্রেস সেক্রেটারি দিমিত্রি পেসকভ লাডট গত সপ্তাহে জানান, ওয়াশিংটন গণতন্ত্র শব্দটিকে বেসরকারিকরণের চেষ্টা করছে। তারা জোরপূর্বক বলছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যে গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে সেটাই সত্যিকারের গণতন্ত্র।

পেসকভ বলেন, ওয়াশিংটন নতুন বিভাজন লাইন তৈরি করতে পছন্দ করে। নিজেদের পছন্দ মতো তারা যে কোনো দেশকে বিভাজিত করে। তার কথায় সুর মিলিয়ে লিজিয়ান বলেন, ওয়াশিংটনের এই বিভাজন লাইন তৈরির পদক্ষেপ কেবল গণতন্ত্রকে বিকৃত করছে। একটি বিভাজক লাইন তৈরি করা শুধু আদর্শগত সংঘর্ষের ‍উৎপত্তি ঘটায় যা সম্পূর্ণরূপে গণতন্ত্রের বিকৃতি ও অপমান।

পিউ রিসার্চ সেন্টারের একটি সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে দেখানো হয়েছে, আমেরিকান জনগণের বিশাল একটি অংশ তাদের দেশের রাজনৈতিক ব্যবস্থা সম্পর্কে গভীর হতাশা প্রকাশ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের তথাকথিত ‘গণতন্ত্রের আলোকবর্তিকা’ অনেক আগেই ভেঙে পড়েছে। মার্কিন গণতন্ত্রের রপ্তানিও চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে।

লিজিয়ান বলছেন, মার্কিন গণতন্ত্রের ব্যর্থতার কারণে আফগানিস্তানে এক লাখের বেশি প্রাণহানি ঘটেছে। তিনি মধ্যপ্রাচ্যে আরব বসন্ত আন্দোলনেরও সমালোচনা করেন। এ প্রসঙ্গে বলেন, তথাকথিত আরব বসস্ত লাখ লাখ উদ্বাস্তু তৈরি করেছে। বাড়িঘর ছেড়ে লাখো মানুষ অসহায় হয়েছে।