advertisement
আপনি পড়ছেন

ইসরায়েলি বুলডোজার আজ রোববার দখলকৃত পশ্চিম তীরের উত্তর-পূর্বে জর্ডান উপত্যকা এলাকার তাম্মুন শহরের পূর্বে আতুফ গ্রামে ফিলিস্তিনি মালিকানাধীন শত শত একর জমিতে পানি সরবরাহকারী পাইপ ধ্বংস করেছে। ফিলিস্তিনের ওয়াফা নিউজ এজেন্সির খবরে এ তথ্য জানা গেছে।

israel destroys water pipes jordan valleyহাজার হাজার ফিলিস্তিনি পাইপলাইনের পানির ওপর নির্ভরশীল

ইসরায়েলি বসতি স্থাপনের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী সিনিয়র কর্মকর্তা মুতাজ বাশারত সাংবাদিকদের বলেছেন, ইসরায়েলি বুলডোজারগুলো ওই এলাকায় ফিলিস্তিনি কৃষকদের ফসলের সেচের জন্য ব্যবহৃত চার কিলোমিটার পানির পাইপলাইন ধ্বংস করেছে।

জর্ডান উপত্যকায় বসবাসকারী ফিলিস্তিনিরা প্রধানত যাযাবর বেদুইন। তারা জীবন ধারণের প্রধান উৎস হিসেবে কৃষি ও গবাদিপশু পালনের উপর অনেক বেশি নির্ভর করে। ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী ঘন ঘন এই ধরনের ধ্বংসযজ্ঞ পরিচালনা করায় তারা ব্যাপক ভোগান্তির শিকার হচ্ছে বছরের পর বছর। ফিলিস্তিনি বসবাসকারীদের অনেককে এলাকা ছেড়ে যেতে বাধ্য করছে দখলদার ইসরায়েল।

israel building settlement grabing palestanian landফিলিস্তিনিদের জমি দখল ও তাদের উচ্ছেদ করে একের পর এক বসতি গড়ছে দখলদার ইসরায়েল

অনুমতি না থাকার অজুহাতে ইসরায়েল প্রায়ই জর্ডান উপত্যকা এলাকায় ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘর ও স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেয়। কর্মকর্তারা বিশ্বাস করেন, জর্ডান উপত্যকা এলাকায় ইসরায়েলের ঘন ঘন ধ্বংসের লক্ষ্য ফিলিস্তিনিদের বাস্তুচ্যুত করা এবং নতুন ঔপনিবেশিক বসতি গড়ে তোলার জন্য তাদের জমি দখল করা।

জর্ডান উপত্যকা ‌'সি-এরিয়া' এলাকায় অবস্থিত যা পশ্চিম তীরের ৬০ শতাংশেরও বেশি প্রতিনিধিত্ব করে এবং সম্পূর্ণরূপে ইসরায়েল দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। জর্ডান উপত্যকা বৃহত্তর জর্ডান রিফ্ট ভ্যালির অংশ। অন্যান্য নদী উপত্যকাগুলির থেকে ভিন্ন। তবে ‌'জর্ডান উপত্যকা' শব্দটি প্রায়শই জর্ডান নদীর নিচের দিকে প্রযোজ্য হয়। যেখানে এটি উত্তরে গ্যালিলি সাগর থেকে বেরিয়ে আসা পথ মিলিত হয়েছে।

১৯৬৭ সালের আগে পশ্চিম তীরে অবস্থিত উপত্যকার অংশে আনুমানিক দুই লাখ ৫০ হাজার ফিলিস্তিনি বসবাস করতো। ২০০৯ সালের হিসাবে এই অঞ্চলে অবশিষ্ট ফিলিস্তিনিদের সংখ্যা ছিল প্রায় ৫৮ হাজার। প্রায় বিশটি স্থায়ী সম্প্রদায় এখানে বসবাস করতো। বেশিরভাগই জেরিকো শহরে এবং উপত্যকার দক্ষিণে বৃহত্তর জেরিকো এলাকার সম্প্রদায়গুলোতে কেন্দ্রীভূত ছিল।

এর মধ্যে আনুমানিক ১০ হাজার বাসিন্দা সি এরিয়ায় বাস করেন। এলাকাটি প্রায়ই ইসরায়েলের আগ্রাসনের শিকার। এসব বাসিন্দার মধ্যে প্রায় ২ হাজার ৭০০ জন বেদুইন এবং পশুপালন সম্প্রদায়ের মানুষ।