advertisement
আপনি পড়ছেন

ক্ষমতা দখলের পর নারীর ব্যাপারে কট্টর নীতি জারি করেছে তালেবান। নারীদের শিক্ষা, খেলাধুলা, চাকরির ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচীর (ইউএনডিপি) একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এভাবে নারীদের চাকরি কিংবা তাদের কাজ থেকে বিরত রাখলে আফগান অর্থনীতির প্রায় এক বিলিয়ন ডলার ক্ষতি হবে।

afgan woman in kabul 1আফগানিস্তানে নারীদের বিক্ষোভ

প্রতিবেদনে বলা হয়, আফগানিস্তানের নামমাত্র জিডিপি এক বছরের মধ্যে ২০ শতাংশ কমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ২০২০ সালের ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে ১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে নেমে আসতে পারে।

সংস্থাটি বলছে, জরুরি সংশোধনমূলক পদক্ষেপ না নিলে পরবর্তী বছরগুলোতে ৩০ শতাংশ জিডিপি কমে যেতে পারে তথা ১৪ বিলিয়ন ডলারে নেমে আসতে পারে। মাথাপিছু বার্ষিক আয় ২০১২ সালের ৬৫০ মার্কিন ডলার থেকে ২০২০ সালে ৫০০-তে নেমেছে। পরের বছর তা শিগগিরই ৩৫০ ডলারে নেমে যেতে পারে।

afgan woman in kabulআফগান নারী

ইউএনডিপির প্রশাসক আচিম স্টেইনার বলেন, ‘আফগানিস্তানের ওপর নতুন আর্থ-সামাজিক মূল্যায়ন থেকে অনুমান করা যায়, নারীদের কাজ থেকে বিরত রাখলে তাৎক্ষণিকভাবে এক বিলিয়ন ডলার পর্যন্ত অর্থনৈতিক ক্ষতি হতে পারে কিংবা দেশের জিডিপির পাঁচ শতাংশ পর্যন্ত কমে যেতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা কর্তৃপক্ষকে প্রতি আহ্বান জানাই যাতে নারীদের শেখার ও কাজ করার অধিকার সমুন্নত থাকে। দেশের মানবিক পুঁজির অর্ধেক মেয়েদের শিক্ষায় বিনিয়োগ করতে ব্যর্থ হলে আগামী বছরের জন্য ভয়াবহ আর্থ-সামাজিক পরিণতি হবে।

ইউএনডিপির ওই প্রতিবেদনের শিরোনাম- ‘আফগানিস্তান: আর্থ-সামাজিক চিত্র ২০২১-২০২২’। ইউএনডিপি এবং স্বাধীন অর্থনীতিবিদদের দ্বারা যৌথভাবে পরিচালিত অর্থনৈতিক মডেলিং ইঙ্গিত দেয়, ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার সঙ্গে আয় হ্রাস, চরম দারিদ্র্যের মধ্যে থাকা সব মানুষের আয় দারিদ্র্য সীমা পর্যন্ত ওঠাতে ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার লাগবে।

গত সেপ্টেম্বরে ইউএনডিপি প্রকাশিত একটি অর্থনৈতিক মূল্যায়নে অনুমান করা হয়, আফগানিস্তানের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংকট সমাধানে দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে ২০২২ সালের মধ্যে জনসংখ্যার ৯৭ শতাংশ পর্যন্ত দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে যেতে পারে।

আফগানিস্তানে ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি আবদুল্লাহ আল দারদারি বলেন, ‘আমরা অপ্রত্যাশিত সম্ভাবনার সম্মুখীন হচ্ছি, যেখানে প্রায় ৪০ মিলিয়ন মানুষের সবচেয়ে মৌলিক মানবিক চাহিদা পূরণ হবে না।’