advertisement
আপনি পড়ছেন

বয়স এখন ৭৬। এই বয়সে ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা দারুণ এক কাজ করে বসলেন। ২০০৩-২০১০ মেয়াদকালে তিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট ছিলেন। আগামী অক্টোবরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনেও প্রার্থী হয়েছেন। মজার বিষয় হচ্ছে, নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়ে বিয়ে করে ফেলেছেন তিনি। তার এ বিয়ে নিয়ে স্যোসাল মিডিয়ায় হইচই পড়ে গেছে। এবিসি নিউজ।

luiz inacio lula da silvaব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা

লুলা যাকে বিয়ে করেছেন তিনি হলেন, সমাজবিজ্ঞানী রোজাঞ্জেলা সিলভা। বয়স ৫৫। বুধবার সাও পাওলোতে ১৫০ অতিথিকে ‘সাক্ষী’ রেখে বিয়ে করেন ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারোর শক্ত এই প্রতিদ্বন্দ্বী।

ব্রাজিলিয়ানদের কাছে লুলা বেশ জনপ্রিয়। এটি তার তৃতীয় বিয়ে। আগের দুই স্ত্রী মারিয়া ডি লর্ডেস দা সিলভা এবং মারিয়া লেটিসিয়া জীবিত নেই। প্রথমজন ১৯৭১ সালে হেপাটাইটিসে এবং দ্বিতীয়জন ২০১৭ সালে স্ট্রোকে মারা যান। নতুন স্ত্রী জানজার (ডাকনাম) সঙ্গে লুলার পরিচয় ও সম্পর্কের সূচনা ২০১৭ সালে। সে সময় দুর্নীতির দায়ে কারাগারে ছিলেন লুলা। পরে তার বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির মামলাটি সুপ্রিমকোর্টে বাতিল হয়ে যায়।

বিয়ে করা প্রসঙ্গে রোমান ক্যাথলিক অনুষ্ঠানে লুলা বলেন, আমি আবার বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, কারণ আমি বিশ্বাস করি, ব্রাজিল স্থিতিশীল হতে যাচ্ছে। আমার মতো ৭৬ বছর বয়সি একজন লোক প্রেমে পড়েছেন বলেই বিয়ে করতে ইচ্ছুক।

বিয়ের পরপরই সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেলগুলোতে লুলার জীবনী দ্রুত আপডেট করা হয়।

এদিকে ব্রাজিলের ভেজ ম্যাগাজিনের উদ্ধৃতি দিয়ে ফ্রান্স ২৪ জানিয়েছে, লুলার সঙ্গে সম্পর্কের আগে ১০ বছরের বৈবাহিক জীবন কাটিয়েছেন জানজা। সে ঘরে কোনো সন্তান ছিল না। জানজার সাবেক স্বামীর পরিচয় জানায়নি ম্যাগাজিনটি।

লুলার অন্যান্য ইভেন্টের মতো বলসোনারো সমর্থকদের বিক্ষোভের ভয়ে সাও পাওলোতে বুধবার বিকেল পর্যন্ত বিয়ের স্থান গোপন রাখা হয়েছিল। অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে রাজনীতিবিদ, দম্পতির পুরোনো বন্ধু এবং গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী গিলবার্তো গিলসহ অন্যান্য শিল্পীরা উপস্থিত ছিলেন।