advertisement
আপনি পড়ছেন

ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ান সেনা নিহতের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, সংঘাতে এ পর্যন্ত অন্তত ২৮ হাজার ৭০০ রুশ সেনা নিহত হয়েছেন। ইউক্রেনের জেনারেল স্টাফের মতে, গতকাল শুক্রবার প্রায় ২০০ রুশ সেনা নিহত হয়েছেন। টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

russian troops facing food crisis ukraineইউক্রেনে রুশ সেনা

ইউক্রেনের পক্ষে দাবি করা হচ্ছে, ২৪ ফেব্রুয়ারি যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে ইউক্রেনীয় বাহিনী ২০৪টি রাশিয়ান বিমান, ১৬৮টি হেলিকপ্টার, ৪৬০টি চালকবিহীন আকাশযান, ১ হাজার ২৬৩টি ট্যাঙ্ক এবং ৩ হাজার ৯০টি সাঁজোয়া যান ধ্বংস করেছে।

তবে সেনা নিহত হওয়ার ব্যাপারে তথ্যের সত্যাসত যাচাই করা সম্ভব হচ্ছে না গণমাধ্যমগুলোর। কারণ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন তথ্য দেওয়া হচ্ছে। রাশিয়ার তথ্যের ব্যাপারে ইউক্রেনের দাবি সঠিক কিনা, কিংবা ইউক্রেনের তথ্যের ব্যাপারে রাশিয়ার দাবি সঠিক কিনা, তা যাচাই করা কঠিন।

rafael grossi iaeaআইএইএ মহাপরিচালক রাফায়েল মারিয়ানো গ্রোসি

পারমাণবিক কেন্দ্র রক্ষায় ২১ লাখ ডলার দেবে জাপান: ইউক্রেনের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (আইএইএ) কার্যক্রমে সহায়তার জন্য জাপান প্রায় ২.১ মিলিয়ন বা ২১ লাখ ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়োশিমাসা হায়াশি এবং আইএইএ মহাপরিচালক রাফায়েল মারিয়ানো গ্রোসি টোকিওতে একটি বৈঠকের পর যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সেখানে বলা হয়েছে, জাপান ইউক্রেনের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে সম্মত হয়েছে। 

১৮ বিলিয়ন ডলারের প্রতিশ্রুতি জি-৭ দেশগুলোর: ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সচল রাখতে ১৮ বিলিয়ন ডলারের বেশি সহায়তার জন্য জি-৭ সদস্য দেশগুলো সম্মত হয়েছে।

জার্মান অর্থমন্ত্রী ক্রিশ্চিয়ান লিন্ডনার ব্লুমবার্গের সাথে একটি সাক্ষাত্কারে বলেছেন, আমি মনে করি এটি খুব ভালো সংকেত যে, জি-৭ দেশগুলো কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ইউক্রেনের পাশে রয়েছে। কারণ ইউক্রেনীয় সেনারা কেবল নিজেদের রক্ষা করছে না, তারা ইউরোপীয় মূল্যবোধকেও রক্ষা করছে।