advertisement
আপনি পড়ছেন

সংকটে জর্জরিত শ্রীলঙ্কা রাশিয়ার কাছ থেকে তেল পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। দেশটির সরকার ঘোষণা দিয়েছে, তেল পেতে মন্ত্রীদের রাশিয়া ও কাতারে পাঠানো হবে। গত মাসে কেনা ৯০ হাজার টন সাইবেরিয়ান অপরিশোধিত তেল শেষ হয়ে গেছে। এমন অবস্থায় তেল পাওয়ার বিষয়ে আলোচনা করতে দুই মন্ত্রী ২৭ জুন রাশিয়ায় যাবেন বলে জানিয়েছেন জ্বালানি মন্ত্রী কাঞ্চনা উইজেসেকেরা। খবর আল জাজিরা।

a man waits in a queue to buy petrol due to fuel shortage in colomboতেল পেতে মন্ত্রীদের রাশিয়া-কাতারে পাঠাচ্ছে শ্রীলঙ্কা

আগের তেলের চালানটি দুবাইভিত্তিক মধ্যস্থতাকারী কোরাল এনার্জির মাধ্যমে আনা হয়েছিল। তবে রাজনীতিবিদরা রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সরকারের সাথে সরাসরি আলোচনার পরামর্শ দিচ্ছেন।

উইজেসেকেরা রোববার কলম্বোতে সাংবাদিকদের বলেন, দুই মন্ত্রী রাশিয়া যাচ্ছেন এবং তিনি আগামীকাল কাতারে যাবেন। আমরা ছাড়ের শর্তে তেলের ব্যবস্থা করতে পারি কি না চেষ্টা করব।

শ্রীলঙ্কায় কার্যত পেট্রোল এবং ডিজেলের সরবরাহ শেষ হয়ে গেছে। নগদ অর্থ সংকটে বেশ কয়েকটি নির্ধারিত চালান অনির্দিষ্টকালের জন্য বিলম্বিত হয়। দুই দিনেরও কম সময়ের চাহিদা মজুদ ছিল। তাও আবার অপরিহার্য পরিষেবার জন্য সংরক্ষিত ছিল।

রোববার রাষ্ট্রীয় সিলন পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন ডিজেলের দাম ১৫ শতাংশ বাড়িয়ে প্রতি লিটার ৪৬০ টাকা নির্ধারণ করেছে। আর প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম ২২ শতাংশ বাড়িয়ে করা হয়েছে ৫৫০ টাকা। বছরের শুরু থেকে ডিজেলের দাম প্রায় চারগুণ ও পেট্রোলের দাম প্রায় তিনগুণ হয়েছে।

উইজেসেকেরা বলেন, তেলের নতুন চালান পেতে অনির্দিষ্টকাল বিলম্বিত হতে পারে। তাই প্রতিদিন সীমিত সংখ্যক যানবাহনে টোকেন সিস্টেম চালু না করা পর্যন্ত গাড়ি চালকদের লাইনে না যেতে অনুরোধ করা হচ্ছে।