advertisement
আপনি পড়ছেন

ভারতে গত কয়েক বছর ধরে রাজনীতিতে দলবদলের জোয়ার চলছে। ঘন ঘন দল পাল্টাচ্ছেন দলের নামি-দামি ব্যক্তিত্বরা। আবার অন্য দলের বিধায়ক, নেতা-কর্মীদের ভাগিয়ে নেওয়ার অভিযোগও আছে। এরই প্রেক্ষিতে রাজস্থানের একটি আদালত কেন্দ্রীয় সরকারের এক মন্ত্রীকে নোটিশ পাঠিয়েছেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

gajendra singhগজেন্দ্র সিং

কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াতের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিল রাজ্যের অ্যান্টি করাপশন ব্যুরো (এসিবি)। অভিযোগে বলা হয়েছিল, রাজস্থানের কংগ্রেস সরকারের পতনের জন্য গজেন্দ্র সিং বিধায়ক ভাগানোর চেষ্টা করেছিলেন। পরে এসিবি গজেন্দ্রের কণ্ঠস্বরের ফরেনসিক পরীক্ষার আবেদন জানিয়ে জয়পুর আদালতে রিভিশন পিটিশন দাখিল করে। আদালত সেই পিটিশনকে আমলে নিয়ে আগামী ১৪ জুলাইয়ের মধ্যে মন্ত্রীকে নোটিশের জবাব দিতে বলেছেন।

বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ব্যাপক সমালোচনা করেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত। তিনি বলেন, দুই বছর আগে কংগ্রেস দলের কাউকে কাউকে নিয়ে রাজ্য সরকারের পতন ঘটাতে চেষ্টা করেছিলেন গজেন্দ্র সিং। কখনো গোপন অডিওতে আবার কখনো প্রকাশ্যে ইঙ্গিতে সে সবের প্রমাণ রয়ে গেছে। স্বাভাবিকভাবেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন। এখন আদালতের নোটিশ যাওয়ার পর তাকে এক প্রকার চেপে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত। বলেন, নির্দোষই যদি হন তাহলে কণ্ঠস্বরের নমুনা দিতে আপনার এত ভয় কেন?

rajstan courtরাজস্থান হাইকোর্ট

জানা গেছে, ২০২০ সালে তৎকালীন উপমুখ্যমন্ত্রী শচিন পাইলটের নেতৃত্বে রাজস্থান কংগ্রেসে বিদ্রোহ হয়। কংগ্রেসের অভিযোগ, গহলৌত সরকারের পতন ঘটাতে চাল চেলেছিল বিরোধী বিজেপি। সেই সময় কয়েকটি অডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছিল।

কংগ্রেস অভিযোগ করেছিল, ওইসব অডিওক্লিপের মধ্যে একটি কণ্ঠ মন্ত্রী গজেন্দ্রের। তখনই বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছিল। তারই পরিপ্রেক্ষিতে গজেন্দ্রের কণ্ঠস্বরের নমুনা চেয়ে আদালতে আবেদন করে এসিবি। সে আবেদনে সাড়া দিয়ে আদালত কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নোটিশ দেন।