advertisement
আপনি পড়ছেন

জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার প্রথম উপ-স্থায়ী প্রতিনিধি দিমিত্রি পলিয়ানস্কি সিরিয়ান গোলান দখলের ইসরায়েলি প্রচেষ্টা প্রত্যাখ্যান করার ক্ষেত্রে রাশিয়ার অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করে বলেছেন, গোলানে নিয়ন্ত্রণ আরোপে ইসরায়েল যত প্রচেষ্টাই চালাক না কেনো, মস্কো তাতে কোনো ধরনের স্বীকৃতি দেবে না। কারণ গোলান সিরিয়ার ভূখণ্ডেরই একটি অংশ। খবর সানানিউজ।

dmitry polyanskyদিমিত্রি পলিয়ানস্কি

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে দিমিত্রি পলিয়ানস্কি বলেন, ইসরায়েল ঘোষণা দিয়েছে, তারা দখলকৃত পশ্চিম তীর ও গোলান মালভূমিতে তাদের নিরাপত্তা প্রকল্প বাড়াবে এবং২০২৬ সাল নাগাদ সেখানে ইহুদি বসতির সংখ্যা দ্বিগুণ করবে।

তেলআবিবের এই প্রচেষ্টার তীব্র সমালোচনা করে রুশ কূটনীতিক বলেন, সার্বভৌম প্রতিষ্ঠার এই ইসরায়েলি প্রচেষ্টাকে রাশিয়া বৈধ তৎপরতা বলে স্বীকার করে না।

জাতিসংঘে রুশ এই প্রতিনিধি বলেন, ফিলিস্তিন ও সিরিয়ায় ইসরায়েল যত আগ্রাসন চালায়, তার সবই যুক্তরাষ্ট্রের অনুমোদনেই করা হয়ে থাকে। এমনকি সর্বশেষ দামেস্ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইসরায়েল যে আগ্রাসন চালিয়েছে, তাতেও যুক্তরাষ্ট্রের অনুমোদন ছিল।

occupied golan heightsগোলান মালভূমি

দীর্ঘদিন ধরে ইসরায়েল ফিলিস্তিনের যে অধিকার লঙ্ঘন করে, সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমাজের নিরবতার সমালোচনা করে পলিয়ানস্কি আরও বলেন, মানবাধিকার ইস্যুতে পশ্চিমা দেশগুলো যে দ্বিমুখী নীতি অবলম্বন করে থাকে, তা কেনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

শুরুতে ইসরায়েল কর্তৃক ফিলিস্তিনের ভূমি দখল, গোলান মালভূমি দখল ইত্যাদি বিষয়ে আরব দেশগুলো কঠোর ভাষায় কথা বলত। কিন্তু কয়েক বছর ধরে তেল আবিবের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের কারণে আরবদেশগুলোর সেই প্রতিবাদ ক্রমেই ম্রিয়মান হয়ে আসছে।