advertisement
আপনি পড়ছেন

পূর্ব ইউক্রেনের দুটি বিচ্ছিন্নতাবাদী প্রজাতন্ত্রের স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দেওয়ার প্রেক্ষিতে কিয়েভ ও দামেস্কের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক শেষ করার ঘোষণা দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। রাশিয়ার মিত্র দেশটির বিরুদ্ধে গতকাল বুধবার এই ঘোষণা দেন তিনি। খবর আনাদোলু।

zelenaskyy and bashar al assadভলোদিমির জেলেনস্কি ও বাশার আল আসাদ

রাশিয়ার হামলার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা দোনবাসের দুটি বিচ্ছিন্ন রাজ্য দোনেৎস্ক ও লুহানস্ক। ফেব্রুয়ারির শেষদিকে ইউক্রেনে হামলার শুরুতেই এ দুটি রাজ্যকে স্বীকৃতি দেয় রাশিয়া। এরপর গতকাল বুধবার তৃতীয় পক্ষের বা নিরপেক্ষ কোনো দেশ হিসেবে সিরিয়া রাজ্য দুটিকে স্বীকৃতি দেয়। এতে ক্ষুব্ধ ইউক্রেন দামেস্কের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দেয়।

টেলিগ্রামে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে সিরিয়ার সাম্প্রতিক পদক্ষেপকে অর্থহীন আখ্যা দিয়ে জেলেনস্কি বলেন, ইউক্রেন ও সিরিয়ার মধ্যে আর কোনো সম্পর্ক থাকবে না এবং সিরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার চাপ আরও বৃদ্ধি পাবে।

ukraine syria relationসিরিয়ার সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করল ইউক্রেন

সিরিয়া সরকারের এ ধরনের কার্যক্রম অবশ্য এটিই প্রথম নয়। ২০১৫ সাল থেকে দামেস্ক রাশিয়ার গৃহযুদ্ধে ব্যাপকভাবে সমর্থন করেছে এবং মস্কোর দেওয়া বিভিন্ন স্বীকৃতিকে সমর্থন করে আসছে। ২০১৮ সালে সিরিয়া দক্ষিণ ওসেটিয়া ও আবখাজিয়াকে সাবেক সোভিয়েত রাষ্ট্র জর্জিয়া থেকে স্বাধীন হিসাবে স্বীকৃতি দেয়। জর্জিয়াও তখন সিরিয়ার সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে।

আবখাজিয়া ও দক্ষিণ ওসেটিয়া এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিকভাবে জর্জিয়ার অংশ। তবে রাশিয়া ও তার মিত্র কয়েকটি দেশ এই দুই অংশের স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দিয়েছে। জর্জিয়া ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে স্বাধীনতা লাভ করে।