advertisement
আপনি পড়ছেন

ইউক্রেনের জরুরি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, একটি রাশিয়ান ক্ষেপণাস্ত্র আজ শুক্রবার ভোরে ইউক্রেনের ওডেসার কৃষ্ণসাগর বন্দরের কাছে নয়তলা অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে আঘাত হেনেছে। এতে কমপক্ষে ১৪ জন নিহত এবং ৩০ জন আহত হয়েছে। অপরদিকে ইউক্রেন থেকে ইউরোপে বিদ্যুৎ রপ্তানি শুরু হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। খবর টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

ukraine is now exporting electricity to the euক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত ১৪, ইউরোপে গেল ইউক্রেনের বিদ্যুৎ

মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ক্ষেপণাস্ত্রটি বিলহোরোদ-ডিনিস্ট্রোভস্কি শহরের ভবনে আঘাত হানে। হামলায় সংযুক্ত স্টোর বিল্ডিংয়ে আগুন ধরে যায়। ওডেসা আঞ্চলিক প্রশাসনের মুখপাত্র সের্হি ব্রাচুক ইউক্রেনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে বলেছেন, ভবনটির একটি অংশ ধসে পড়ার পরে কিছু লোক ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছে। তাদের উদ্ধার করতে অভিযান চলছে। আরেকটি ক্ষেপণাস্ত্র একটি রিসোর্টে আঘাত হেনেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

ইউক্রেন এখন ইইউতে বিদ্যুৎ রপ্তানি করছে

ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, ইউক্রেন এখন ইউরোপে বিদ্যুৎ রপ্তানি করছে। ইউক্রেনের বিদ্যুতে রোমানিয়াতে বিদ্যুৎ সঞ্চালন চালু করা হয়েছে। এই প্রক্রিয়ার সূচনা ইউরোপকে রাশিয়ান হাইড্রোকার্বনের ওপর নির্ভরতা কমাতে সাহায্য করতে পারে।

জেলেনস্কি বৃহস্পতিবার রাতের ভিডিও বার্তায় বলেন, প্রধানমন্ত্রী ডেনিস শ্যামিহালের একটি ঘোষণার পর ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ রপ্তানি শুরু হয়েছে। ইউক্রেনের ওপর রাশিয়ার আক্রমণের চার মাস পর রপ্তানির মুখ দেখল ইউক্রেন।

জেলেনস্কি বলেন, এই বিদ্যুৎ রপ্তানি আমাদের জন্য নতুন দিগন্ত উন্মোচন করেছে। এটি ইউরোপীয় ইউনিয়নে সন্নিবেশের ক্ষেত্রে আমাদের আরেকটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ। ইউক্রেন এখন এমন কিছু করছে যা একসময় অসম্ভব বলে মনে হয়েছিল।

জেলেনস্কি আরও বলেন, ইউক্রেনীয় বিদ্যুৎ আমদানির জন্য ইউরোপীয় ভোক্তাদের ধন্যবাদ। ইউক্রেন থেকে বিদ্যুৎ আমদানির ফলে ইউরোপীয় ভোক্তারা রাশিয়ান গ্যাসের ওপর থেকে নির্ভরতা কমিয়ে ফেলতে পারবে। তাই এটি কেবল আমাদের জন্য রপ্তানি আয়ের প্রশ্ন নয়, বরং সমগ্র ইউরোপের নিরাপত্তার প্রশ্ন। আমি আপনাদের মনে করিয়ে দিতে চাই- এই সফলতা অর্জন যুদ্ধ শুরুর পরই হয়েছে।