আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 06 মিনিট আগে

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে অন্য কোনো মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর খবর সত্য নয় বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপসন বেগম খালেদা জিয়াকে অন্য কোন মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর যে খবর গণমাধ্যমে প্রচার হচ্ছে তা ভুল ইনফরমেশন।’

asaduzzaman khan kamal

১৩ ফেব্রুয়িারি, মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, খালেদা জিয়া যে ‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি’র মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হয়েছেন শুধুমাত্র সেই মামলায় তিনি জেল হেফাজতে রয়েছেন। এছাড়া অন্য কোন মামলায় তাকে ‘শোন এ্যারেস্ট’ দেখানে হয়নি বা দেখানো হবেও না।’

মন্ত্রী বলেন, 'তিনি (খালেদা জিয়া) আরো দুই মামলায় জামিনে আছেন। আর তার নামে বেশকিছু মামলা আছে- যেমন শাহবাগ থানায় একটি ও বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি মামলায় শিগগিরই তার হাজিরা রয়েছে। ওইসব মামলায় হাজিরা দেয়ার সময় কোর্টই সিদ্ধান্ত নেবে কোন মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে।'

খালেদা জিয়াকে সুযোগ সুবিধা ছাড়া নির্জন ও পরিত্যক্ত কারাগারে রাখার বিষয়ে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘তার সামাজিক মর্যাদা বিবেচনা করেই তাকে এখানে রাখা হয়েছে। দীর্ঘ পথ দূরের কাশিমপুর কিংবা কেরানিগঞ্জে অনেক বেশি কয়েদি থাকায় তার জন্য সমস্যা তৈরি হতে পারে এবং সেখান থেকে তাকে আনা নেয়ার কাজে সমস্যা তৈরি হতে পারে। এ জন্য তাকে এখানে রাখা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আরও তিনটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে। এর মধ্যে গত সোমবার গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ‘২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লায় বাসে পেট্রল বোমা হামলার ঘটনায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এছাড়াও ২০০৭ ও ২০০৮ সালে দায়ের করা দুই মামলার বিষয়েও একই খবর প্রকাশ করা হয।

উল্লেখ্য তিনটি মামলা ছাড়াও মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিকৃত তথ্য দেয়ার অভিযোগে এবং ১৫ আগস্ট ভুয়া জন্মদিন পালনের অভিযোগে দুটি পৃথক মামলায়ে গেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে।

Add comment

Security code
Refresh