আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 11 মিনিট আগে

কদিন বাদে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নিদাহাস ট্রফি টি-টোয়েন্টি। তিন দেশের এই সিরিজে স্বাগতিকদের সঙ্গে খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত। শ্রীলঙ্কার ৭০তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হচ্ছে এই আসর। নিদাহাস ট্রফি সামনে রেখে ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জরেকার তার লেখা এক কলামে বাংলাদেশকে আসরের দ্বিতীয় শক্তিশালী দল বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি এক নম্বরে রেখেছেন তার দেশ— ভারতকে। নিজের লেখায় মাঞ্জরেকার বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে মাশরাফির ফেরার আশাবাদও ব্যক্ত করেন।

is mashrafe retiring from t 20is

মাঞ্জরেকার তার কলামে লিখেন, ‘নিদাহাস ট্রফি বাংলাদেশের সামনে আরো একটা সুযোগ নিয়েছে। এখানে যদি তারা ভালো কিছু করে, তাহলে বিশ্ব ক্রিকেট তাদেরকে আরো বড় দল হিসেবে দেখবে। গত কয়েক বছরে ধীরে হলেও বাংলাদেশ শক্তিশালী দল হিসেবে দাঁড়িয়েছে। তবে তাদের শারীরিকভাবে আরো সক্ষম ও ফিট হয়ে উঠতে হবে। একই সঙ্গে খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসেরও উন্নতি করতে হবে।’

ভারতের হয়ে ৩৭টি টেস্ট এবং ৭৪টি ওয়ানডে খেলা মাঞ্জরেকার মনে করেন, বিদেশের মাটিতে নিজেদের সক্ষমতার সাক্ষর রাখতে বাংলাদেশকে আরো অনেক দূরের পথ পারি দিতে হবে। তিনি সাকিব-তামিম ও মোস্তাফিজকে বিশ্বমানের ক্রিকেটার আখ্যা দিয়ে বলেন যে, নিদাহাস ট্রফিতে ভারতের পর বাংলাদেশই দ্বিতীয় শক্তিশালী।

sonjoy manjrekar talking to media

বাংলাদেশকে শক্তিশালী বললেও, কদিন আগে লঙ্কানদের কাছে বাংলাদেশের ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল হারের কথা ভুলেননি মাঞ্জরেকার। তারপরও তিনি মনে করেন, সাকিব-তামিম ও মোস্তাফিজ এক সঙ্গে পারফর্ম করলে শ্রীলঙ্কাকে হারানোর যথেষ্ট ক্ষমতা আছে বাংলাদেশের।

বাংলাদেশের প্রতি এতো বিশ্বাসের কারণ হিসেবে ক্রিকেটের প্রতি বাংলাদেশের মানুষের আবেগকে সামনে এনেছেন মাঞ্জরেকার। তিনি মনে করেন, কোটি কোটি মানুষের ক্রিকেট-আবেগ বাংলাদেশকে এমন একটা পথে নিয়ে এসেছে, যা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ময়দানে বাংলাদেশকে এগিয়ে দিবে বহু দূর।

মাঞ্জরেকার লিখেন, ‘বাংলাদেশের উত্থানের ব্যাপারটা খুবই চমৎকার। সেখানে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা অন্য পর্যায়ের, আমার তো মনে হয়, ভারতের চেয়েও বাংলাদেশ ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বেশি। বাংলাদেশ আসলে এখন এক-খেলার দেশ। বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা সেখানে বড় তারকা। ঢাকায় ক্রিকেটারদের বড় বড় বিলবোর্ড তাই প্রমাণ করে।’

নিজের লেখায় টি-টোয়েন্টিতে মাশরাফির ফেরার বিষয়টি নিয়েও কথা বলেন মাঞ্জরেকার। গত বছরের শ্রীলঙ্কা সফরে বোর্ডের প্রচ্ছন্ন চাপে টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেন মাশরাফি। কিন্তু এখন আবার তাকে টি-টোয়েন্টিতে ফেরাতে চাইছে বোর্ড।

মাঞ্জরেকার মনে করেন, মাশরাফি যদি ফেরেন, তবে অধিনায়ক হয়েই তার ফেরা উচিত। তিনি লিখেন, ‘আশা করছি অধিনায়ক হয়েই মাশরাফি বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলে ফিরবেন। তার কৌশল খুবই রোমাঞ্চকর। ভালো অধিনায়কত্ব সব সময়ই একটা দলকে দারুণ কিছু করতে উদ্বুদ্ধ করে।’

Add comment

Security code
Refresh