আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 11 মিনিট আগে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য হাওয়াইতে বসবাসরত জনগণের মুঠোফোনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ভুল সতর্কবার্তা দেয়া হয়েছে। এতে উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত ওই দ্বীপপুঞ্জের অধিবাসীদের মধ্যে তীব্র আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

wrong warning of the missile attack

উত্তর কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই গত শনিবার সকালের বাঁর্তাটি সবার মুঠোফোনে ছড়িয়ে দেয়া হয়। এতে চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য সবাই ছুটোছুটি করতে শুরু করেন।

পরে মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওই বার্তাটি সঠিক নয়। একই সাথে কি করে ওই ভুল বার্তাটি সবার মুঠোফোনে পৌঁছালো তাও খতিয়ে দেখা হবে বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের অধিবাসীদের মোবাইল ফোনে আসা ওই ভুল বার্তায় লেখা ছিল, ‘জরুরি সতর্কবার্তা, হাওয়াই’র দিকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ধেয়ে আসছে। দ্রুত নিরাপদ আশ্রয় গ্রহণ করুন। এটা কোনো মহড়া নয়।’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন ঘোষণা দিয়েছেন যে, আমেরিকায় পরমাণু হামলা চালানোর বোতাম তার টেবিলেই থাকে। এ ঘোষণার পর থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের অধিবাসীরা আতঙ্কের মধ্যে ছিলেন। কারণ উত্তর কোরিয়া থেকে সবচেয়ে কাছের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য হল হাওয়াই। এমন পরিস্থিতিতে দ্বীপপুঞ্জের অধিবাসীদের হামলার আতঙ্ক বা হামলার সম্ভাব্য বা আগাম তথ্য জানাতে একটি সতর্কবার্তা পাঠানোর ব্যবস্থা চালু করা হয়।

শনিবার ওই সতর্কবার্তাটিই ভুলবশত সবার কাছে পৌঁছে দেয়া হলে জনমনে আতঙ্ক তৈরি হয়। এ ঘটনায় হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের গভর্নর ডেভিড আইজ দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন, একজন কর্মী ভুল বোতামে চাপ দেয়ার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে এ ঘটনার পিছনে অন্য কোন উদ্দেশ্য আছে কিনা তা তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।’ 

Add comment

Security code
Refresh


advertisement