আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

অভিনব এক সিরিয়াল কিলার ‘দর্জি ডাকাতের’ সন্ধান মিলেছে। এলাকায় যিনি পরিচিত ছিলেন একজন ভালো দর্জি হিসেবে। কিন্তু রাতের অন্ধকারে ডাকাতি করতে সিদ্ধহস্ত। পুলিশ বলছে, ৩৩ জনকে খুনের নেপথ্যে রয়েছেন এই দর্জি ডাকাত। এ খবরে পুরো এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

order covers the chest ring

ভারতের মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপাল লাগোয়ায় আদেশ খামরা (৪৮) নামের এক ব্যক্তির সন্ধান দিয়েছে দেশটির পুলিশ। স্থানীয় মান্ডিদীপ শিল্পাঞ্চলের বাজারে তার একটি দর্জির দোকান রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশ জানতে পারে তিনি দিনে দর্জির কাজ এবং রাতে ডাকাতি করতে বের হন।

পুলিশ বলছে, আদেশ তার কয়েকজন বন্ধুর সাথে মিলে পরিকল্পিতভাবে ডাকাতি করতো। তারা জমাত হাইওয়ে ট্রাক চালকদের বিশ্রামের স্থানে প্রায় নিয়মিত আড্ডা বসিয়ে এ কাজ করতো। প্রথমে ট্রাক চালকদের সঙ্গে আলাপ জমাতো, পরে মদের আসর বসিয়ে মাদক মেশানো মদ খাইয়ে চালক ও খালাসীদের অচেতন করে ফেকতেন। এরপর হত্যা করে লাশ কোনো একটি নির্জন এলাকায় ফেলে রাখতো।

এ বিষয়ে ভোপালের পুলিশ ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল ধর্মেন্দ্র চৌধুরী বলেন, গ্রেপ্তারের পর একে একে সব খুনের কথা স্বীকার করতে শুরু করেছে আদেশ খামরা। এখন পর্যন্ত সে ৩৩টি খুনের কথা জানিয়েছে।

তিনি আরো জানান, মধ্যপ্রদেশের আশপাশের ৫-৬টি রাজ্যে আদেশ ও তার বন্ধুরা বেশ কিছু খুন করেছেন। ওই সব ঘটনাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

পুলিশ জানায়, ২০১০ সালের এগারো মাইলের একটি স্থানে দুটি ট্রাক ছিনতাই করে চালকদের হত্যার মধ্য দিয়ে তারা সিরিয়াল কিলিংয়ের যাত্রা শুরু হয়। গত ১৫ আগস্ট অদ্ভুতভাবে এক ট্রাক চালকের হত্যা মামলা তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে এই চক্র। গ্রেপ্তার করা হয় এই চক্রের নয় সদস্যকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে বের হয়ে আসে ভয়ংকর এসব তথ্য।

Add comment

Security code
Refresh