advertisement
আপনি দেখছেন

নির্দিষ্ট শর্ত না মানা এবং শুল্ক ফাঁকির অভিযোগে চট্টগ্রামের মুরাদপুর থেকে দুটি বিলাসবহুল মার্সিডিজ গাড়ি জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। দুটি গাড়ির দাম প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা।

mercedes seized

মুরাদপুরের কার কোল্ড অ্যান্ড সার্ভিস সেন্টার নামের এক গ্যারেজে গাড়ি দুটি রাখা হয়েছিল। গতকাল বুধবার রাতে শুল্ক গোয়েন্দারা জব্দ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. তারেক মাহমুদ।

তিনি বলেন, ‘কারনেট সুবিধায় আনা গাড়ি দুটি শর্ত মেনে ফেরত দেওয়া হয়নি এবং শুল্ক ফাঁকি দিয়ে হাতবদল করা হয়েছে।’ আটক দুই গাড়ির মধ্যে একটি এসইউভি, অন্যটি সেডান বলে জানিয়েছেন তিনি।

এসইউভির গাড়িটির রেজিস্ট্রেশন নম্বর চট্ট মোট্রো-ঘ-১৪-১৭৫৩ আর সেডান গাড়িটির রেজিস্ট্রেশন নম্বর ঢাকা মেট্রো-ভ-১৪-০২২১। তবে দুই গাড়ির এই দুই নম্বরই ভুয়া বলে খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

শুল্ক গোয়েন্দারা আরও জেনেছেন, ২০১১ সালের জানুয়ারিতে লন্ডন থেকে মার্সিডিজ এসইউভি নিয়ে আসেন মোহাম্মদ মনসুর আলী নামের এক ব্যক্তি এবং ২০১০ সালের ডিসেম্বরে সেভানটি আনেন লন্ডনপ্রবাসী মোহাম্মদ আশরাফুল আলম।