advertisement
আপনি দেখছেন

মিয়ানমারের সরকারি নিরাপত্তা বাহিনীর অত্যাচারে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ২০ লাখ ডলারের জরুরি সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে জাপান। সরকার ও জাতিসংঘের চলমান মানবিক সহায়তা কার্যক্রম জোরদারে এই অর্থ দেয়া হবে।

Rohingya camp

সোমবার এক যৌথ বিবৃতিতে জাপান দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশের কক্সবাজারে বিভিন্ন রোহিঙ্গা শিবিরে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের আশ্রয়, খাদ্য ও স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে জাপান সরকার ২০ লাখ ডলারের জরুরি সহায়তা প্রদান করবে।

এই অর্থ আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম), জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) ও জাতিসংঘের শিশু তহবিল (ইউনিসেফ) -এর পরিচালনায় রোহিঙ্গাদের জন্য ব্যয় হবে। এর মধ্যে আইওএম ১০ লাখ ডলার, ইউএনএইচসিআর ৫ লাখ ডলার ও ইউনিসেফ ৫ লাখ ডলারের সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

জাপান দূতাবাসের বিবৃতিতে বলা হয়, কক্সবাজারে বিভিন্ন রোহিঙ্গা শিবিরে আশ্রয় নেয়া ৭৪ হাজার রোহিঙ্গাদের প্রায় ৩ দশমিক ৩ শতাংশ অভিভাবকহীন অপ্রাপ্তবয়স্ক। তাদেরকে স্বাভাবিক জীবন ফেরাতে এবং তাদের সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে ইউনিসেফ কাজ করে যাবে। এছাড়া ইউএনএইচসিআরের আওতায় কুতুপালং ও নয়াড়ায় নিবন্ধিত শরণার্থী শিবিরে আগামী বর্ষা মৌসুমে টিকে থাকার ব্যাপারে সহায়তা প্রদান করা হবে।

আর আইওএম নতুন-পুরাতন মিলিয়ে ১ লাখ ৩০ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গার জরুরি প্রয়োজন নিশ্চিতে কাজ করে যাবে।