advertisement
আপনি দেখছেন

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের এক মুয়াজ্জিনকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে ধর্মীয় বিদ্বেষের জের ধরে আহমদিয়া-বিদ্বেষীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এই ঘটনায় এক জনকে আটক করেছে পুলিশ।

muazzin injured in mymensingh

আহত মুয়াজ্জিন মুস্তাফিজুর রহমানকে রাতেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে রাতেই তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। মুস্তাফিজুর রহমানের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরে।

গতকাল সোমবার এশার নামাজের কিছু আগে এই ঘটনা ঘটে। উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের থানপুর এলাকার একটি আহমদিয়া মসজিদে তিন যুবক ঢুকে মুয়াজ্জিন কুপিয়ে আহত করেছে বলে জানা গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সৈয়দ নূরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় বিরোধিতার কারণেই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে প্রাথমিক ভাবে। আহমদিয়া-বিদ্বেষীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। পুলিশ এরই মধ্যে তদন্তে নেমেছে।’

মুয়াজ্জিনকে কুপিয়ে পালানোর সময় এক যুবককে আটক করে গণপিটুনির পর পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয়রা। আটক যুবকের নাম আবদুল আহাদ। তার বাড়ি নেত্রকোনায়। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞেসাবাদে সে জানিয়েছে, হামলাকারী ছিলেন মোট তিনজন। কিন্তু তাদের নাম পরিচয় জানাননি তিনি।

গণপিটুনিতে আহত হওয়ায় আবদুল আহাদকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সুস্থ হয়ে উঠলে তাকে বিস্তারিক জিজ্ঞেসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।