advertisement
আপনি দেখছেন

গত ৫ মে অনুষ্ঠিত হওয়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের রাতে অপ্রীতিকর ঘটনার সম্মুখীন হয়ে আইনের দ্বারস্থ হয়েছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বিদায়ী সভাপতি শাকিব খান। সোমবার রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি জিডি (সাধারণ ডায়েরি) করেছেন তিনি। যেখানে অভিযুক্তদের তালিকায় রয়েছে দুই অভিনেতা জায়েদ খান ও সাইমন সাদিকের নাম। এরপর থেকেই গোটা চলচ্চিত্রপাড়ায় এটাই এখন আলোচিত বিষয়।

faruk actor

শিল্পী সমিতির প্রতিষ্ঠাতা 'মিয়া ভাই' খ্যাত কিংবদন্তি অভিনেতা ফারুক এই বিষয়ে মন্তব্য করেছেন, 'ভোট গ্রহণ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু বিদায়ী সভাপতি শাকিব খান কেন মাঝরাতে ভোট গণনা কক্ষে প্রবেশ করেছিল কে বিষয়টা মোটেও স্পষ্ট না। সভাপতির ক্ষমতাবলে সে ভোট গণনা কক্ষে প্রবেশ করার অধিকার রাখে না।'

শাকিব খান এডিসিতে হামলার শিকার হয়েছেন এমন অভিযোগে নির্বাচনে জয়ী হওয়া শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান ও কার্যনির্বাহী পদে জয়ী সাইমন সাদিককে দায়ী করে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় জিডি করেছেন। এসম্পর্কে ফারুক বলেন, 'শাকিবের অভিযোগ সম্পূর্ণ বোগাস। এসব জিডি করা, ঢঙ করার কোন মানে আমি দেখি না। এর কোন অভিযোগ থাকলে আমাদের কাছে আসতে পারতো। ওকে আমরা সবাই স্নেহ করি, ভালোবাসি। মাথার ওপর আমরা থাকতে থানা-পুলিশ কেন? ও নিজেকে একা করে ফেলছে? ওর কি আর কাউকে দরকার নেই?'

তিনি বলেন, 'দেশের যতো পুলিশ আসে, আসুক। দেখি কী করতে পারে। পারলে ওদের নিয়ে যাক। আগে আমাদের নিতে হবে, তারপর জায়েদ-সাইমনকে নেবে পুলিশ। আমরা গিয়ে দাঁড়াবো ওদের পাশে।'

ফারুক বলেন, 'শাকিব খান ভোট গণনা কেন্দ্রে প্রবেশ করার পরই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। তাঁকে জোর করে সেখান থেকে বের করে দেয়া হলে সে থানায় অভিযোগ করে। শাকিব অভিযোগে বলেছে, কয়েকজন প্রার্থী নাকি ভোট কারচুপির অভিযোগ করেছে। তার ওপর নির্বাচনের ফলাফল জানাতে দেরি হওয়ায় সে নিজেই ছুটে যায়। শাকিব হয়তো জানে না, নির্বাচন হওয়ার সময় আগের সভাপতির ক্ষমতা আর থাকে না। যদি মন্দ কিছু ঘটে থাকতো সেখানে তবে প্রার্থীরা এই নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারতো। শাকিব কেন নিজেকে ছোট করতে সেখানে গেলো?’

তিনি বলেন, 'আর শাকিবের যদি একান্তই ভোট গণনা কক্ষে প্রবেশ করা জরুরি ছিল তবে সিনিয়র কোন শিল্পীকে জানাতে পারতো। তবে তো এধরণের কোন গন্ডগোল হতো না। সেইদিন আমি নিজেই রাত সাড়ে ১১ টার পর এফডিসি থেকে বেরিয়েছি। আমার চোখে কোন রকম অনিয়ম ধরা পড়েনি।'

শাকিবের উদ্দেশ্যে ফারুক বলেন, 'শাকিব নিজেকে রাজা ভাবলে ভুল করবে। সে অনেক কিছুই করতে পারতো। কিন্তু কিছু প্ররোচনায় এসে নিজের জীবন আর ভবিষ্যত নিজেই নষ্ট করতে বসেছে সে। সে যাদের আপন ভাবছে, তারাই যে শত্রু তা বুঝতেই পারছে না শাকিব। কোনো মতেই ওর উচিৎ হয়নি এমন একটি পরিস্থিতি সৃষ্টি করা।'