advertisement
আপনি দেখছেন

রাজধানীর বনানীর ১৭ নম্বর রোডের এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে বিদেশি নাগরিকসহ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত ১৯ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এছাড়াও আহত হয়েছেন শতাধিক। আহতদের রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ইউনাইটেড হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

fire banani people

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে বনানীর এফআর টাওয়ারে আগুন লাগার প্রায় পাঁচ ঘণ্টার বেশি সময় পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট এক সঙ্গে কাজ করে। তাদের সঙ্গে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যরাও এমনকি আশেপাশের স্থানীয়ও মানুষ, শিক্ষার্থীরাও যোগ দেন। তারপরও আগুন নিয়ন্ত্রণে এতো সময় লাগার বিষয়ে নানা প্রশ্ন উঠছে। 

আগুন নিয়ন্ত্রণে দীর্ঘ সময় লাগার কারণ ব্যাপারে ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা বিভাগের কর্মকর্তা দেবাশীষ বর্ধন বলেন, মূলত দুটি কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে দেরি হয়েছে। প্রথমত পানির পর্যাপ্ত অভাব ছিল। ঘটনাস্থলে পানির যোগান দেয়া চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। তারপরও সাধ্যমতো চেষ্টা করা হয়েছে।

আরেকটি বিষয় হচ্ছে সিনথেটিক ফাইবার। তিনি বলেন, 'ভবনের বিভিন্ন অফিসে বা কক্ষে সিনথেটিক ফাইবার ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে ফাইবারে আগুন ধরে গিয়ে প্রচুর ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ধোঁয়ার কারণেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসতে সময় বেশি লেগেছে।’

এছাড়াও ঘটনাস্থলে হাজারো মানুষের উপস্থিতি ফায়ার সার্ভিসসহ বিভিন্ন সংস্থার কাজে বিঘ্ন ঘটিয়েছে বলে জানান তিনি।