আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 17 মিনিট আগে

ফেনী জেলার সোনাগাজীতে আলিম পরীক্ষা কেন্দ্রে কেরোসিন ঢেলে গায়ে আগুন দেয়া সেই নুসরাত জাহান রাফির শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন। রাফিকে লাইফসাপোর্টে নেয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

feni girl fair

এ সময় ওই ছাত্রীর অবস্থা ভালো না জানিয়ে ডা. সামন্ত লাল বলেন, আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি।

এদিকে বার্ন ইউনিটের অন্য চিকিৎসকরা জানান, নুসরাত জাহান রাফিকে নল দিয়ে তাকে খাবার দেয়া হচ্ছে। যেকোনো সময় পরিস্থিতি যেকোনো দিকে মোড় নিতে পারে।

এর আগে রোববার ডা. সামন্ত লাল সেন জানিয়েছিলেন, মেয়েটির শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তার অবস্থা ক্রিটিক্যাল। তার ব্যাপারে চিকিৎসকরা এখনও কিছু বলতে পারছে না। মেয়েটির চিকিৎসা চলছে। আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছি।

উল্লেখ্য, গত শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে আরবি প্রথমপত্র পরীক্ষায় অংশ নিতে যান রাফি। এক সময় ওই ছাত্রীকে ফুসলিয়ে অধ্যক্ষের নিয়ন্ত্রিত কয়েকজন শিক্ষার্থী মাদ্রাসার ছাদে নিয়ে গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনাগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরবর্তীতে ফেনী সদর হাসপাতালে নেয়। সেখান থেকে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাফির উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠান।