advertisement
আপনি পড়ছেন

কিছুদিন আগেই বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে দেশ থেকে মোট ১৫ লাখ শ্রমিক নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল মালয়শিয়ান সরকার। তবে ঘোষণার কিছুদিন যেতে না যেতেই ১৫ লাখ বাংলাদেশি শ্রমিক নেওয়ার পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত করেছে দেশটি। ইতোমধ্যেই চিঠির মাধ্যমে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে তা জানিয়ে দিয়েছে মালয়েশিয়া।

bangladeshi worker in maloy

চিঠিতে মালয়শিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি আহমাদ জাহিদ হামিদি জানিয়েছেন, মন্ত্রিসভা নতুন বিদেশি শ্রমিক নিয়োগ স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এজন্য আপাতত বাংলাদেশ থেকেও কোন শ্রমিক নিতে পারছে না মালয়েশিয়া সরকার। এখন আমাদের কত শ্রমিক প্রয়োজন, সে বিষয়ে সন্তোষজনক তথ্য না পাওয়া পর্যন্ত বিদেশ থেকে কর্মী নেওয়া স্থগিত থাকবে।

দেশটির গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ বলেন, 'বর্তমানে দেশের যেসব প্রতিষ্ঠানে অনুমতিপত্র ছাড়া বিদেশি শ্রমিক কাজ করছেন কিংবা যে সকল শ্রমিকদের অনুমতিপত্রের মেয়াদ অতিক্রমে করেছে তাঁদের বৈধতার জন্য নিজের কর্মরত প্রতিষ্ঠানের কাছে আবেদন জানাতে হবে।'

এছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, আগামী ৩০ জুনের মধ্যেই যে সকল শ্রমিকদের কাজের মেয়াদ শেষ হয়েছে বলে আবেদন করবেন তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানের বিদেশি শ্রমিকদের বৈধতা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

পাশাপাশি শ্রমিকদের বৈধ করার ব্যাপারে চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো সতর্ক না হলে শুধু জরিমানা দিয়ে পার পাওয়া যাবে না বলে তিনি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সাবধান করেন।

 

আপনি আরও পড়তে পারেন

অবশেষে মুখ খুললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশ ব্যাংকের কম্পিউটার সারাতে দু’বছর লাগবে!

‘ম্যালওয়ার’-কে সন্দেহ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের!

এখন আমাদের কত শ্রমিক প্রয়োজন, সে বিষয়ে সরকার সন্তোষজনক তথ্য না পাওয়া পর্যন্ত বিদেশ থেকে কর্মী নেওয়া স্থগিত থাকবে।