advertisement
আপনি দেখছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাক্ষাৎ শুধু শাড়ি আদান-প্রদানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিলো বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ মন্তব্য করেন।

ruhul kabir rijveeবিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী

তিনি বলেন, সম্প্রতি ভারত সফরে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। এ সফরে প্রধানমন্ত্রী তিস্তা নদীর পানি নিয়ে একটা সুরাহা করে আসবেন, এমনটাই প্রত্যাশা ছিল দেশের জনগণের। কিন্তু তিস্তা চুক্তির সমাধানের পরিবর্তে হাসিনা ও মমতার সাক্ষাৎ শুধুমাত্র শাড়ি আদান-প্রাদানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল।

বিএনপির এ নেতা আরো বলেন, অতীতে তিস্তা নদীর পানির কোন হিস্যাই বাংলাদেশ পায়নি। অথচ সম্প্রতি কোন বিনিময় ছাড়াই ফেনী নদীর পানি ভারতকে উপহার হিসেবে দেওয়া হয়েছে। যার কারণে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল প্রতিদিন মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এখন সেচের মৌসুম চলছে। অথচ কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট ও নীলফামারীসহ বিভিন্ন এলাকায় ইতোমধ্যে সেচের পানির সংকট দেখা দিয়েছে। কিন্তু এ বিষয়ে মমতার সঙ্গে কোন ধরনের আলোচনাই করেননি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিপুল জনপ্রিয়তা সহ্য করতে পারেন না। তাই তাকে মিথ্যা বানোয়াট মামলায় কারাগারে বন্দি করে রেখেছেন। কিন্তু দেশের জনগণ তাদের প্রিয় নেত্রীকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

অসুস্থ খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা দিন দিন আরো খারাপ হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, এ দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় নেত্রীর জামিন অথবা তার সুচিকিৎসার বিষয়ে প্রতিহিংসাপরায়ণ সরকারের নিষ্ঠুরতা যেন থামছেই না।