advertisement
আপনি দেখছেন

সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী ও বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান বলেছেন, চালক অপরাধ করলে আইন অনুযায়ী বিচার যা হওয়ার হবে, কিন্তু তার যেন জামিনের ব্যবস্থা রাখা হয়। রোববার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে গঠিত টাস্কফোর্সের সভায় তিনি এ কথা বলেন।

shajahan khan ministerবাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান

শাজাহান খান বলেন, সড়ক পরিবহনের নতুন আইনে চালক অপরাধ করলে যেন জামিন পায়, সরকারের কাছে এটা দাবি। দাবি মানা না মানা সরকারের ব্যাপার। সড়ক দুর্ঘটনায় জামিন না পেয়ে দীর্ঘদিন গাড়ি চালাতে না পারলে চালকের অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, সারাদেশে এক বছরে ৩ থেকে ৪ হাজার এক্সিডেন্ট হয়। একজন ড্রাইভার যদি এক্সিডেন্ট করে দীর্ঘদিন গাড়ি চালাতে না পারে, তাহলে ড্রাইভারের ঘাটতি পড়ে যাবে। এখনো দেশে প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ দিয়ে নতুন ড্রাইভার তৈরি করার ব্যবস্থা হয়নি।

চালক এক্সিডেন্ট করার পর জামিন পেলে দুর্ঘটনার পরিমাণ বাড়বে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যেটা বলেছেন এটা কিন্তু ঠিক নয়। যদি একজন ড্রাইভার আদালত থেকে জামিন না পায় সে ক্ষেত্রে সে আর ড্রাইভিং করতে পারবে না। তাতে আরও বেশি অচলাবস্থা তৈরি হবে।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে শাজাহান খান বলেন, দেশে কোনো ধর্মঘট নেই। এ আইন কার্যকরের পর লাইসেন্স ও ফিটনেস না থাকায় অনেক চালক ভীত হয়ে রাস্তায় বের হয়নি।

শ্রমিক ফেডারেশন সভাপতি বলেন, অনেক গাড়ির ফিটনেস না থাকায় সেই গাড়িগুলো চালানো যাচ্ছে না। এ কারণে রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা কম, এটা বাস্তবতা। ইউএনবি।