advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে একটি বিশেষায়িত বঙ্গবন্ধু আইন বিশ্ববিদ্যালয় হওয়া প্রয়োজন, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের এমন প্রস্তাব ভালো লেগেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ জাতীয় বিচার বিভাগীয় সম্মেলন ২০১৯ এ সভাপতির বক্তব্যে প্রধান বিচারপতি এ প্রস্তাব দেন।

pm hasina chief justiceছবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা ও প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এ সম্মেলনে প্রধান বিচারপতি বলেন, এ ধরনের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হলে দক্ষ বিচারক পাওয়া যাবে।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু আইন বিশ্ববিদ্যালয়-সংক্রান্ত এ নতুন প্রস্তাবটি খুব ভালো লেগেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশেষায়িত অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ই হচ্ছে, এটা হবে না কেন?

এ বিষয়ে যা যা করণীয় তা আইনমন্ত্রীকে দ্রুততার সাথে ব্যবস্থা নিতে বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার আশা প্রকাশ করেন, বিচারকরা দেশ, জনগণ ও সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ হয়ে আইন ও ন্যায়বিচারের শাসন নিশ্চিত করতে সহায়তা করবেন।

তিনি বলেন, ‘আমি চাই না যে আমাদের মতো কেউ নিজের স্বজন হারানোর কষ্ট সহ্য করে (ন্যায়বিচারের জন্য) বছরের পর বছর অপেক্ষা করুক। আমাদের সংবিধান অনুযায়ী সকলেই ন্যায়বিচার ও আইনের কাছে সমান আশ্রয় লাভ করুক।’

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। সম্মেলনে আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সরোয়ার এবং সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর বক্তব্য রাখেন।

দিনব্যাপী এই সম্মেলনে বিচার সংক্রান্ত কাজ ডিজিটালকরণ, কার্যকর আদালত প্রশাসন পরিচালনাসহ বিভিন্ন প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে। সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগ এবং সারাদেশের নিম্ন আদালতের বিচারকগণ সম্মেলনে অংশ নেন।