advertisement
আপনি দেখছেন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, বয়কট নয়, রাষ্ট্রীয় ব্যস্তাতার কারণেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারত সফর বাতিল করেছেন। শুক্রবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আয়োজিত প্রত্যাগত প্রবাসী আওয়ামী ফোরামের প্রথম ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

obaidul kader in conferenceপ্রত্যাগত প্রবাসী আওয়ামী ফোরামের প্রথম ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

সেতুমন্ত্রী বলেন, আসন্ন শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় ব্যস্ততার কারণে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এখন ভারত সফরে নাও যেতে পারেন। তবে পরবর্তীতে ব্যস্ততা কমলে তারা প্রতিবেশী দেশটি সফরে যাবেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফর চিরতরে বাতিল হয়নি উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, প্রতিবেশী দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। এই সম্পর্ক যেন অক্ষুণ্ণ থাকে তাই দ্বিপাক্ষিক আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে যে কোন সমস্যার সমাধান করা হবে।

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, এটি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটি নিয়ে বাংলাদেশের মন্তব্য করা সমীচীন নয়। তবে ভারতের কোন বিষয়ে যদি বাংলাদেশে প্রভাব ফেলে বা প্রতিক্রিয়া আসে, তাহলে সেটি দেখার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আছে। ইতোমধ্যে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বক্তব্য দেয়া হয়েছে।

বিএনপি-জামায়েত সরকারকে সরানো জন্য বিভিন্ন তৎপরতা করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো বলেন, বিরোধীরা চুপচাপ বসে নেই। তারা আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরানোর জন্য চক্রান্তের পথ বেছে নিয়েছে। তাই এসব চক্রান্ত প্রতিরোধ করার জন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন সম্পর্কে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সম্মেলন উপলক্ষে তাদের ভালো প্রস্তুতি রয়েছে। ইতোমধ্যে ২৯টি জেলার সম্মেলনের কাজও শেষ হয়েছে। এত অল্প সময়ে এটি করা একটি অবিশ্বাস্য ব্যাপার। তাই জাতীয় সম্মেলন নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও জাগরণের সৃষ্টি হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ সিদ্দিকের তৃতীয়বারের মতো বিজয়ে অর্জনে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। পাশাপাশি বাঙ্গালি হিসেবে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে নির্বাচিত রুশনারা আলী, আফসানা ও রুপা হককেও অভিনন্দন জানান তিনি।