advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 39 মিনিট আগে

আওয়ামী লীগের শেখ হাসিনা নবমবারের মতো সভাপতি এবং ওবায়দুল কাদের দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তবে দলটির সভাপতিমণ্ডলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক ও কার্যনির্বাহী সদস্য পদে বেশ কিছু পরিবর্তন হয়েছে।

al 21 conference 3

আজ শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশনে নানা আনুষ্ঠানিকতা শেষে নতুন কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়। আগামী তিন বছরের জন্য এ কমিটি দায়িত্ব পালন করবে।

দলটির সভাপতিমণ্ডলীতে নতুন করে যুক্ত হয়েছেন জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান। তারা দুজনই সদ্য বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম সম্পাদক ছিলেন।

আগের কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও ডা. দীপু মনি তাদের পদে বহাল আছেন। এ তালিকায় নতুন করে যুক্ত হয়েছেন হাছান মাহমুদ ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। এ দুজনের মধ্যে হাছান সদ্য বিলুপ্ত কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং নাছিম সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

এছাড়া নতুন কমিটিতেও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বহাল রয়েছেন আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক ও আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। তবে তাদের সঙ্গে নতুন করে যুক্ত হয়েছে মির্জা আজম ও এসএম কামাল হোসেনের নাম। তারা দুজনই সদ্য বিলুপ্ত কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ছিলেন।

আগের কমিটির দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ নতুন কমিটিতে প্রচার সম্পাদক এবং আগের কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া দপ্তর সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়েছেন।

আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন নজিবুল্লাহ হিরু ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন মেহের আফরোজ চুমকি। তারা দুজনেই নতুন কমিতে নতুন মুখ।

আজ সকাল সাড়ে ১০টায় সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের বিশেষ কাউন্সিল উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর শুরু হয় সম্মেলনের নানা আনুষ্ঠানিকতা। এ অধিবেশনে সারা দেশ থেকে আসা কাউন্সিলরদের কণ্ঠভোটে আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র সংশোধন, বাজেট, ঘোষণাপত্র ও অর্থ রিপোর্ট পাশ হয়।

কাউন্সিল অধিবেশনে আওয়ামী লীগের প্রায় সাড়ে সাত হাজার কাউন্সিলর অংশ নিয়েছেন।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ২১তম ত্রি-বার্ষিক জাতীয় সম্মেলন শুরু হয়। এর উদ্বোধন করেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে সারাদেশ থেকে আসা প্রায় ১৫ হাজার কাউন্সিলর ও প্রতিনিধি অংশ নেন।

উদ্বেধনী অনুষ্ঠানে বিএনপিসহ সরকার-বিরোধী দলগুলো অংশ না নিলেও মহাজোটের শরিক ও সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টিসহ মিত্ররা অংশ নিয়েছে।

sheikh mujib 2020