advertisement
আপনি দেখছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সৎ, দক্ষ ও সাহসী নেতৃত্বে বদলে গেছে বাংলাদেশ। বিশ্বের কাছে এখন উন্নয়নের এক বিস্ময় বাংলাদেশ। সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এভাবেই প্রশংসা করেন মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা।

pm hasina in perlament

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে বদলে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। দেশ এখন সত্যিই বদলে গেছে। তবে এটা এমনি এমনি হয়নি। এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সৎ, দক্ষ ও সাহসী নেতৃত্বের কারণে হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সরকার দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে সফল হয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। মাদকের চাহিদা এবং যোগান কমানো হয়েছ।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর তিন মেয়াদে পুলিশের জনবল ও সক্ষমতা বাড়িয়েছেন। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর যখন যেটা প্রয়োজন হয়েছে প্রধানমন্ত্রী সেটাই দিয়েছেন। নতুন কারাগার নির্মাণ করেছেন। বন্দিদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করছেন। এখন ৯৯৯ এ ফোন করেই মানুষ নানা রকম সেবা পাচ্ছে।

দেশের বিভিন্ন খাতে উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর অনেকেই বলেছেন, এ দেশ হবে দারিদ্রের মডেল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দক্ষতার মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন এমন পর্যায়ে নিয়ে গেছেন, যা সারাবিশ্বের জন্য বিষ্ময়।

জাতীয় পার্টির (জেপি) সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, প্রধানমন্ত্রী প্রতিটি জিনিসের খুঁটিনাটি দেখেন। প্রতিটি বিষয়ে তার জ্ঞান রয়েছে। তার নেতৃত্বে দেশের যে উন্নয়ন হয়েছে তা কেউই অস্বীকার করে না। এমনকি যারা সরকার বিরোধী, তারাও এটা স্বীকার করেন।

বাংলাদেশকে এখন বিশ্বের প্রতিটি দেশ অনুকরণীয় মনে করে মন্তব্য করে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিবারাত্রি পরিশ্রমের ফল।