advertisement
আপনি দেখছেন

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার (ক্যাসিনো খালেদ) বিরুদ্ধে দায়ের করা মাদক মামলার অভিযোগ গঠন করে আনুষ্ঠানিক বিচার কার্যক্রম শুরু করেছেন আদালত।

khaled mahmud vhuya

বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ রবিউল আলম এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার কার্যক্রম শুরু করেন। পাশাপাশি আগামী ১ এপ্রিল এ মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন তিনি।

অভিযোগ গঠনের সময় খালেদকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় খালেদ নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন এবং আদালতের কাছে ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করেন।

এর আগে গত ১০ ফেব্রুয়ারি এ মামলার অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে মামলাটি ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ। এ সময় আদালত আজ ২৬ ফেব্রুয়ারি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ধার্য করেন। তারও আগে গত বছর ১৭ নভেম্বর খালেদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে দায়ের করা মামলাটির চার্জশিট দাখিল করে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রাজধানীর গুলশানের নিজ বাসা থেকে খালেদকে আটক করে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে ফকিরাপুল ইয়ংমেনস ক্লাবে ‘ক্যাসিনো’ পরিচালনার অভিযোগ রয়েছে।

আটক করার সময় খালেদের বাসা থেকে একটি অবৈধ পিস্তল, ছয় রাউন্ড গুলি, নবায়ন না করা একটি শটগান ও ৫৮৫ পিস ইয়াব উদ্ধার করা হয়। আটকের পরদিন তাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক ও মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে তিনটি মামলা দায়ের করেন র‌্যাব-৩ এর ওয়ারেন্ট অফিসার গোলাম মোস্তফা। গত ২০ সেপ্টেম্বর তাকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়।