advertisement
আপনি দেখছেন

রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করায় আগামীকাল রোববার থেকে ফের ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হচ্ছে। ইতোমধ্যেই ব্যবসায়ীরা নতুন করে এলসি করেছেন। এদিকে এমন খবরে দেশের বাজারগুলোতে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম।

onion bd

এ ব্যাপারে ব্যবসায়ীদের সংগঠন সাতক্ষীরার ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, গত চারদিন আগেও জেলার বিভিন্ন বাজারে দেশি কেজিপ্রতি পেঁয়াজের দাম ছিল ৭০ থেকে ৭৫ টাকা। যা এখন বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকায়।

তিনি বলেন, পণ্যটি রপ্তানির ওপর ভারতের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করায় এর প্রভাব বাজারগুলোতে পড়েছে। সামনে দাম আরো কমবে। পেঁয়াজের পাশাপাশি কমেছে রসুনের দামও। প্রতি কেজি রসুনের দাম এখন ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। কয়েকদিন আগেও যা ছিল ১১০ থেকে ১২০ টাকা।

সাতক্ষীরার বড় বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী আজিজ মোল্লা বলেন, বাজারগুলোতে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম এখন ৪৫ থেকে ৫০ টাকা। আমদানি বেড়ে গেলে এর দাম আরো কমবে।

এদিকে পেঁয়াজের দাম কমায় স্বস্তি প্রকাশ করছেন স্থানীয় ক্রেতারা। বেশ কয়েকজন ক্রেতা গণমাধ্যমকে বলেন, কিছুদিন আগেও ১৫-২০ টাকা কেজির পেঁয়াজ কিনতে হয়েছে ২০০ থেকে ২৫০ টাকায়। এখন ৪৫ থেকে ৬০ টাকায় কেনা যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের অক্টোবরে হঠাৎ করেই বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারতীয় সরকার। এরপর থেকে দেশের বাজারে বেড়ে যায় দাম। বিভিন্ন স্থানে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকায়ও বিক্রি হয়েছে।

sheikh mujib 2020