advertisement
আপনি দেখছেন

মামলার আসামিকে সাজা হিসেবে মুক্তিযুদ্ধ ও ইসলামী বই পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে আগামী এক বছরের মধ্যে তাকে ৫টি গাছ লাগাতে হবে এবং দেখতে হবে একটি মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা। মঙ্গলবার চাঞ্চল্যকর এ রায় দেন মাগুরা জেলা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান।

magura accused ibrahim 1সাজাপ্রাপ্ত ইব্রাহিম (ডানে)

ইব্রাহিম হোসেন নামের এই আসামিকে এক বছরের জন্য এমন সাজা দেয়া হয়েছে। তবে তাকে কারাগারে থাকতে হবে না। এই সময়ের মধ্যে সুনির্দিষ্ট কাজগুলো করতে পারলেই মামলা থেকে মুক্তি মিলবে।

মামলার রায়ে বলা হয়েছে, আগামী এক বছরের মধ্যে তাকে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক দুটি বই (জাহানারা ইমামের একাত্তরের দিনগুলি এবং রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধাদের লেখা একাত্তরের চিঠি) পড়তে হবে। দেখতে হবে কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সিনেমা আগুনের পরশমণি।

এছাড়া ইসলাম ও নৈতিকতার ওপর দুটি বই পড়তে হবে। পাশাপাশি ২টি বনজ এবং ৩টি ফলের গাছ লাগাতে হবে। এই সময়ের মধ্যে নেশা জাতীয় কোনো দ্রব্য সেবন করা যাবে না এবং কোনো অসৎ সঙ্গীও থাকতে পারবে না।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ইব্রাহিমের মায়ের সঙ্গে তার চাচি সায়লা খাতুনের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ধারালো ছুরি দিয়ে চাচীর ওপর হামলা করে ইব্রাহিম। পরে এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় মামলা দায়ের করেন সায়লা খাতুন। মামলার প্রেক্ষিতে ৭দিন কারাগারে থাকার পর জামিনে মুক্ত হন ইব্রাহিম ও তার মা। কিন্তু পারিবারিকভাবে মীমাংসা না হওয়ায় মামলাটি শেষ পর্যন্ত আদালতে গড়ায়।