advertisement
আপনি দেখছেন

দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুরের সাবেক সংসদ সদস্য এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রীর জামিন আবেদন খারিজের পর জেলা জজ আব্দুল মান্নানকে তাৎক্ষণিক বদলির আদেশ কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

bangladesh high court

আজ বুধবার বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এ রুল জারি করেন।

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগীয় সচিবকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবারের ওই ঘটনায় কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন ব্যারিস্টার আব্দুল কাইয়ুম লিটনসহ কয়েকজন আইনজীবী আদালতের নজরে আনার পর এ রুল জারি করা হয়।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার দুর্নীতির একটি মামলায় পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিন আবেদন নাকচ করে তাদের জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছিলেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আবদুল মান্নান।

ওইদিন দুপুরে এ আদেশ দেওয়ার পর বিকেলেই আইন মন্ত্রণালয় থেকে তাৎক্ষণিকভাবে বদলির (স্ট্যান্ড রিলিজ) নির্দেশ পান ওই বিচারক। আর বিচারক বদলের চার ঘণ্টার মধ্যেই মামলাটিতে জামিন পান ওই দম্পতি।