advertisement
আপনি দেখছেন

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় বিজিবি ও গ্রামবাসীদের মধ্যে ‘সংঘর্ষে’ নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তারা একই পরিবারের সদস্য। বৃহস্পতিবার সকালে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এ মামলা করা হয়।

khagrasori clash case

মামলায় ১৯ জনের নাম উল্লেখ করার পাশাপাশি অজ্ঞাত আরও ৬০-৭০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মাটিরাঙ্গা থানার ওসি শামসুদ্দিন ভুঁইয়া জানান, বিজিবি ৪০ ব্যাটালিয়নের হাবিলদার ইসহাক আলী বৃহস্পতিবার সকালে মামলাটি দায়ের করেন।

আসামিদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা দেওয়া এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের কাছ থেকে অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে গুলি করে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে বলেও জানান ওসি শামসুদ্দিন।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার দুপুরে মাটিরাঙ্গার গাজীনগর এলাকায় গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে বিজিবি ও গ্রামবাসীর মধ্যে ‘সংঘর্ষ’ হয়। এতে বিজিবির এক সদস্য ও উল্লিখিত একই পরিবারের চারজন নিহত হয়।

নিহতরা হলেন- গাজীনগর গ্রামের মুসা মিয়া (৬০), তার দুই ছেলে আহম্মদ আলী (২৫), আলী আকবর (২৭), আকবরের শ্বশুর মফিজ মিয়া (৫০) এবং বিজিবি ৪০ ব্যাটালিয়নের জওয়ান মো. শাওন (৩০)।

এদিকে, ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যাতে নতুন করে বিশৃঙ্খলা ঘটতে না পারে সেজন্য ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে জানিয়েছেন মাটিরাঙ্গা থানার ওসি শামসুদ্দিন।

অন্যদিকে, মঙ্গলবারের ওই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। গতকাল বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘মাটিরাঙ্গার ঘটনার দায় এড়াতে পারে না বিজিবি’।