advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ১৩টি হটলাইন চালু করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান, আইইডিসিআর। এসব নম্বরে এত পরিমাণ কল আসছে যে, তা সামলাতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, হটলাইনে প্রতি মিনিটে গড়ে তিনটি করে কল আসছে।

corona virus photo

আইইডিসিআর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় হটলাইনে ৪ হাজার ৩২৯টির বেশি কল এসেছে। এ হিসেবে প্রতি মিনিটে গড়ে ৩টি করে কল আসছে। মোট কলের ৪ হাজার ২১২টিই করোনা সংক্রান্ত।

হটলাইনে কল দেয়া ব্যক্তিরা সামান্য হাঁচি, কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত হলেও করোনার পরীক্ষা করতে হবে কি-না, পরীক্ষায় কত টাকা লাগবে ইত্যাদি বিষয়ে জানতে চাইছেন। তাদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

জানা গেছে, আগে থেকে চালু ছিল ৪টি হটলাইন। গত ৮ মার্চ দেশে করোনা আক্রান্ত তিনজন রোগী শনাক্ত হওয়ার পর উদ্ভূত পরিস্থিতি সামলাতে নতুন করে আরো ৮টি নম্বর ও টেলিফোনে মোবাইল সেবা ১৬২৬৩ নম্বরসহ মোট ১৩টি হটলাইন চালু করা হয়।

corona iedcr

এ ছাড়া স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি জাতীয় কমিটিসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে পৃথক তিনটি করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিচ্ছেন। করোনা আক্রান্ত সন্দেহে রোগীদের রাখা কোয়ারেন্টাইনেরও খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো তিনজনকে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়। যাদের মধ্যে একজন নারী ও দুইজন পুরুষ। তাদের মধ্যে দুইজন সম্প্রতি ইতালি থেকে দেশে ফেরার পর তাদের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। আর ওই দুইজনের সংস্পর্শে আসায় আরেকজনের শরীরে ভাইরাস ছড়ায়। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে, হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন দুই শতাধিক মানুষ।